১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেøাভেনিয়ান কোচে আগ্রহী সালাউদ্দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘এখন সবাই জানে যে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচের পদটি খালি আছে এবং সেখানে একজন বিদেশীকে নেয়া হবে। আমি নিজে কাউকে ইনভাইট করিনি। তবে অনেকেই নিজেরাই এসে তাদের বায়োডাটা জমা দিয়ে গেছে। তারাও কাজ করতে চায়, আমারও কোচ দরকারÑ বিষয়টি এমনই। এখন ব্যাপার হচ্ছে আমি কি চাই বা কেমন কোচ চাই সেটা। আমি আসলে খুব বেশি অভিজ্ঞ কোচ নিতে চাচ্ছি না এই মুহূর্তে এবং দীর্ঘমেয়াদেও নিতে চাচ্ছি না। নিলে নেব ২-৩ মাসের জন্য। শর্ট টাইমের জন্য নেয়ার একটাই কারণÑ সামনে জাপান ফুটবল দল বাংলাদেশে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলতে আসবে এবং সামনে হবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ। মূলত এই দুটি এ্যাসাইনমেন্টের জন্যই আমি বিদেশী কোচ নেব। সেøাভেনিয়ান কোচ এসে আমার সঙ্গে কথা বলেছে। আমি তাঁকে বলেছি এক সপ্তাহ পর আমার চূড়ান্ত মতামত তাকে জানাব। এখন দেখা যাক, কি হয়।’ বাফুফে ভবনে মঙ্গলবার বাফুফে সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিন এমন প্রতিক্রিয়াই ব্যক্ত করেন।

লোডভিক ডি ক্রুইফের বিদায়ের পর সাইফুল বারী জাতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে আছেন। তবে সালাউদ্দিন বরাবরই বিদেশী কোচের পক্ষে। ক্রুইফকে বিদায় করে দেয়ার পর তিনি জার্মান কোচের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন। এখনও অবশ্য কোন জার্মান কোচ বাফুফের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। তবে সেøাভেনিয়ার ৪১ বছর বয়সী এরমিন সিলজ্যাক সালাউদ্দিনের সঙ্গে দেখা করে নিজের জীবন বৃত্তান্ত দিয়ে গেছেন।

সালাউদ্দিনের ভাষ্য অনুযায়ী, এরমিনের বায়োডাটা বেশ আকর্ষণীয়। তবে সেটা সাবেক ফুটবলার হিসেবে। ১৯৯৪ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত সেন্টার ফরোয়ার্ড হিসেবে খেলেছেন তিনি সেøাভেনিয়ার জাতীয় দলে, ১৪ গোল করেছেন ৪৮ ম্যাচে। ইউরো ২০০০-এ খেলেছেন, ইউরো ২০০৪-এর বাছাইপর্বে করেছেন ৮ গোল। ১৯৯৫-৯৬ সালে সেøাভেনিয়ান লীগে ২৮ গোল এবং ২০০৪ সালে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ৭ গোল করে হন সর্বোচ্চ গোলদাতা। খেলেছেন এশিয়ার বিভিন্ন দেশের ক্লাব দলে (চীন, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া)। বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে খেলে জিতেছেন ৭টি দলগত শিরোপা। উয়েফা প্রো-লাইসেন্সধারী কোচ তিনি। ২০১২ সালে সেøাভেনিয়ার প্রিমিয়ার লীগের দল অলিম্পিয়া জুবলযানার কোচ ছিলেন। সালাউদ্দিন জানান, ‘এরমিনের কোচিং অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ না হলেও সে বেশ তরুণ এবং কর্মঠ, এটা আমাকে আকৃষ্ট করেছে। সে বাংলাদেশের ফুটবল সম্পর্কে না জানলেও এশিয়ান ফুটবল সম্পর্কে ভালই ধারণা রাখে।’

সালাউদ্দিনের সঙ্গে দেখা করে বাফুফে ভবন ত্যাগ করার সময় সংবাদমাধ্যমের কাছে এরমিন বলেন, ‘যদিও এদেশের ফুটবল সম্পর্কে খুব বেশি জানি না, তারপরও আমি এখানে কাজ করতে খুবই আগ্রহী। সম্প্রতি বাংলাদেশ যে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচগুলো খেলেছে, সেগুলো আমি দেখেছি। আমার মনে হয়েছে দলে একাধিক ভাল প্লেয়ার আছে। আমি যদি দলটির দায়িত্ব পাই তাহলে এদের আক্রমণাত্মক ও রক্ষণাত্মক দুই স্টাইলেই খেলাব।’

এখন দেখার বিষয়, শেষ পর্যন্ত কোচ হিসেবেই এরমিনকেই পছন্দ করে কি না বাফুফে।