২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধান রাঙ্গা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ খুলনার পাইকগাছায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সুন্দরবনের বনদস্যু রাঙ্গা বাহিনী প্রধান আমীর হোসেন ওরফে রাঙ্গা (৪০) নিহত হয়েছে। সোমবার ভোরে পাইকগাছার কুমখালী নামক স্থানে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ২টি বন্দুক, ১টি বিদেশী পিস্তল, ১২ রাউন্ড বন্দুকের গুলি, ৭ রাউন্ড চাইনিজ রাইফেলের গুলি এবং ২ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, ১টি ছোরা, ১টি দা ও ১টি কাচি উদ্ধার করেছে। নিহত রাঙ্গা খুলনার রূপসা উপজেলার আলাইপুর গ্রামের শফি উদ্দিন সরদারের ছেলে। এ ঘটনায় পাইকগাছা থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সুন্দরবনের বনদস্যু রাঙ্গা বাহিনীর প্রধান আমীর হোসেন রাঙ্গা সুন্দরবনসহ সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। সে দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থেকে অপরাধমূলক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছিল। গোপন খবরের ভিত্তিতে রবিবার দুপুরে তাকে তার শ্বশুর বাড়ি পাইকগাছা উপজেলার হরিঢালী গ্রাম থেকে আটক করা হয়। থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে তার বাহিনীর কাছে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলা বারুদ রয়েছে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার ভোরে তাকে নিয়ে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধারের জন্য সুন্দরবনের কুমখালী নামক স্থানে পৌঁছলে তার সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। দু’ পক্ষের গুলি বিনিময়কালে রাঙ্গা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গুলিতে আহত হয়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে গুলিবিদ্ধ রাঙ্গাকে পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রাঙ্গার বিরুদ্ধে পাইকগাছা, দাকোপ, মংলা, রূপসাসহ বিভিন্ন থানায় অস্ত্র, অপহরণ, ডাকাতিসহ বহু মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।