১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পটুয়াখালীতে অবরোধে মলিন কৃষকের হাসি

  • আমনের বাম্পার ফলন

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটুয়াখালী, ২২ জানুয়ারি ॥ পটুয়াখালীসহ উপকূলীয় জেলাগুলোতে এবার আমনের বাম্বার ফলন হলেও হাসি নেই এ অঞ্চলের কৃষকদের মুখে। টানা অবরোধের কারণে জেলার বাইরে ধান পরিবহন করতে না পারায় ও ফড়িয়ারা ধান না কেনায় ধানের ক্রয়মূল্য অনেকটাই কমে গেছে। এ অবস্থায় কৃষকরা এখন দিশাহারা।

পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের পাশের বিভিন্ন বাজারের ধান ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত বছরের এই সময়ে প্রতি মণ ধান ৯শ’ থেকে এক হাজার টাকা দরে বিক্রি করলেও এবার প্রতি মণ ধান ৭শ’ টাকার উপরে বিক্রি হচ্ছে না। এ অবস্থায় বাধ্য হয়েই কৃষকরা কম মূল্যে ধান বিক্রি করছেন। আর ফড়িয়ারা ধান পরিবহন করতে না পারায় মহাসড়কের পাশে শত শত বস্তাভর্তি ধান পড়ে রয়েছে। আর অবরোধের মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করায় ধান পরিবহনের জন্য ট্রাক ভাড়াও বৃদ্ধি পেছেয়ে তিন থেকে চারগুণ। এ অবস্থা বেশিদিন চলতে থাকলে বিপুলঅঙ্কের ক্ষতির মুখে পড়বেন এ অঞ্চলের কৃষকরা।

তবে পটুয়াখালীর পুলিশ সুপার সৈয়দ মোসফিকুর রহমান জানান, হরতাল-অবরোধে পণ্য পরিবহন করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে মহাসড়কে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এছাড়া কৃষকদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে ধান পরিবহনকারী যানবাহনে বাড়তি নিরপত্তার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি দেশের মাটি ও মানুষের কথা চিন্তা করে, কৃষকদের বাঁচাতে অচিরেই এই রাজনৈতিক সমস্যা সমাধানের পথ খুঁেজ বের করার দাবি জানিয়েছেন উপকূলীয় কৃষকরা।