১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৫৯ ভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ একটানা চারদিন পতনের পর বৃহস্পতিবার দেশের উভয় পুঁজিবাজারে মূল্য সূচক বেড়েছে। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের মোট ৫৯ ভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধির দিনে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। বুধবারের বড় দরপতনের পরে দিনটিতে বড় ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের একটি অংশকে সক্রিয় হতে দেখা যায়। যার কারণে লেনদেনে কিছুটা ভাটা থাকলেও দিনশেষে উভয় বাজারেই বেশিরভাগ কোম্পানির দর বেড়েছে। দিনটিতে ব্যাংক, ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বস্ত্র খাতসহ বিভিন্ন কোম্পানিরই দর বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পরে দিনশেষে ডিএসইর সার্বিক সূচকটি আগের দিনের চেয়ে ১৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৭৯৭ পয়েন্টে। দিনভর সেখানে লেনদেন হওয়া ৩০৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৮০টির, কমেছে ৮৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টি কোম্পানির শেয়ার দর। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২২৩ কোটি ৬ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

দিনটিতে ডিএসইর সেরা-২০ তালিকায় থাকা কোম্পানিগুলোর মোট ৯৩ কোটি ৭৭ লাখ ৩৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৪২.০৩ শতাংশ। এ দিন ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইলের। দিনভর এ কোম্পানির ৫০ লাখ ৬ হাজার ৭০৪টি শেয়ার ১১ কোটি ৯৩ লাখ ৭০ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে। যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৫.৩৫ শতাংশ। এ ছাড়া লাফার্জ সুরমা সিমেন্টর ৭ কোটি ৬৬ লাখ, ন্যাশনাল ফিড মিলের ৬ কোটি ৮০ লাখ, আইডিএলসির ৬ কোটি ২৫ লাখ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ৫ কোটি ৪৪ লাখ, গ্রামীণফোনের ৫ কোটি ২৮ লাখ, ব্র্যাক ব্যাংকের ৫ কোটি ২৩ লাখ, সামিট এলায়েন্স পোর্টের ৫ কোটি ২ লাখ, বেক্সিমকোর ৪ কোটি ৪০ লাখ এবং এনভয় টেক্সটাইলের ৪ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইতে দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, অলটেক্স, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, নর্দার্ন জুটস, আইসিবি, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস, মুন্নু সিরামিক, রেকিট বেনকিজার, এইমস ফাস্ট ও রেনউইক যজ্ঞেশ্বর।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : প্রগতি লাইফ, সায়হাম কটন, ইসলামিক ইন্স্যুরেন্স, সোনালী আঁশ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, আইসিবি ৩য় এনআরবি, এলআর গ্লোবাল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১, পিএইচপি মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১ এবং রিপাবলিক।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, বৃহস্পতিবারে ডিএসইতে খাতওয়ারি লেনদেনে এগিয়ে ছিল বস্ত্র খাতটি। সারাদিনে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩৯ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৯ ভাগ। দ্বিতীয় অবস্থানে দাঁড়ায় জ্বালানি এবং শক্তি খাতের কোম্পানি। সারাদিনে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ২৫ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১২ ভাগ। তৃতীয় অবস্থানে ছিল ব্যাংক খাতটি। ব্যাংকগুলোর মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ২৪ কোটি। সম্মিলিতভাবে যা মোট লেনদেনের ১১ দশমিক ৪৫ ভাগ। দিনশেষে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ৩৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৮৯২৪ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২২০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৩০টির, কমেছে ৫৯টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টি কোম্পানির। লেনদেন হয়েছে ২৬ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৩২ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সেই হিসেবে বৃহস্পতিবার সিএসইতে লেনদেন কমেছে ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিক, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, বেক্সিমকো, অলটেক্স, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, খান ব্রাদার্স, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট ও হামিদ ফেব্রিক্স লিমিটেড।