২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সহসাই ফিরছেন আমির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ দিয়ে সহসা ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছেন মোহাম্মদ আমির। পাকিস্তান ক্রিকেটে বোর্ডের (পিসিবি) মুখপাত্র আগা আকবর এ কথা জানিয়েছেন। তবে সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত হবে আগামী সপ্তাহে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সভা শেষে। ‘খুব শীঘ্রই ঘরোয়া প্রথমশ্রেণীর ম্যাচ দিয়ে আমির ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে’ বলেন পিসিবির এই মুখপাত্র। একই সঙ্গে ঠিক কবে নাগাদ বল হাতে মাঠে ফিরবেন ২২ বছর বয়সী পেসার দুবাইয়ে আইসিসির সভার পরই সেটি জানা যাবে।

২০১০ সালে পাকিস্তান দলের ইংল্যান্ড সফরে লর্ডস টেস্টে অভিনব স্পট-ফিক্সিং কলঙ্কে জড়িয়ে পড়েন তৎকালীন অধিনায়ক সালমান বাট, মোহাম্মদ আমির ও অপর পেসার মোহাম্মদ আসিফ। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০১১ সালে লন্ডনে জেলে যেতে হয় তাদের। বয়স কম হওয়ায় আমিরকে পাঠানো হয় কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে। একই সঙ্গে আইসিসি কর্তৃক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন আমির। চলতি বছরের আগস্টে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হবে। গতিতারকাকে বিশ্বকাপ দলে অন্তর্ভুক্ত করতে অবশ্য সর্বাত্মক তোড়জোড় চালিয়েছিল পাকিস্তান। শাস্তির মেয়াদ কমিয়ে আনতে চেষ্টার ত্রুটি করেনি পিসিবি। কিন্তু আইসিসি তাতে অনড় থাকে। অবশ্য বয়স ও ক্যারিয়ারের কথা মাথায় রেখে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা আগেই ঘরোয়া ম্যাচে সুযোগ দেয়ার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ দিয়ে ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন করতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ওই মুখপাত্র। এর আগে গত সপ্তাহে এ বিষয়ে স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছিলেন পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খান। বয়স কম, তুখোড় প্রতিভাবান, পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় ভাল আচরণ সব মিলিয়ে আমিরকে ফেরাতে সর্বোচ্চ চেষ্টাই করেছে পিসিবি। সে তুলনায় অপর দুই ক্রিকেটার বাট-আসিফ বোর্ডের সুবিধা পাননি। ২০১০-এ লর্ডসের সেই স্পট-ফিক্সিং ছিল ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম কলঙ্কিত ঘটনা। আমিরকে পাঁচ বছর, বাটকে দশ বছর ও আসিফকে সাত বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে আইসিসি। অভিযুক্তরা লন্ডনে জেলও খাটেন। বয়স কম হওয়ায় আমিরকে অবশ্য কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। আইসিসির আগামী সভায় এ আমিরের ঘরোয়া ক্রিকটে ফেরার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে। তাহলে একই সঙ্গে বাংলাদেশী তারকা মোহাম্মদ আশরাফুলেরও ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার পথ প্রশস্ত হবে।

সংবাদ মধ্যামের দাবি, এরই মধ্যে এ ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব জানিয়েছে আইসিসির নির্বাহী কমিটি! আর এটা বাস্তাবায়ন হলে উপকৃত হবেন তরুণ আমির, নিষিদ্ধ হওয়ার আগে (২০০৯-১০) যিনি পাকিস্তানের হয়ে ১৪ টেস্ট ও ১৫ ওয়ানডে খেলেন।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া