২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নান্দনিক ফার্নিচার

নান্দনিক ফার্নিচার

উনিশ শতকেও ফার্নিচারের ডিজাইনে বড় অলঙ্করণ প্রাধান্য পেত। এগুলো দৃষ্টিনন্দন হলেও নিত্যপ্রয়োজন মেটাতে পারত সামান্যই। ফার্নিচার তৈরিতে কারিগরের কতটা সময় লেগেছে তার উপর সেই ফার্নিচারের মূল্য নির্ভর করত। অপরদিকে আধুনিক ফার্নিচারের ডিজাইন হতে হয় সহজ এবং কার্যকর। এতে কোন অপ্রয়োজনীয় ব্যাপার থাকে না অর্থাৎ বাহুল্যবর্জিত। এভাবেই ‘লেস ইজ মোর’ এই লক্ষ্য নিয়ে ফার্নিচারের ভুবনে পরিমিত ডিজাইনের পণ্যের নতুন যুগের সূচনা হয়। এই ধারা বিশ শতকের শেষ দিকে আধুনিক স্থাপত্যশৈলী ও গৃহসজ্জায় অবদান রেখেছে।

এবারের ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় হাতিল প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নে হাতিল কমপ্লেক্স লিমিটেডের সিএমডি সেলিম এইচ রহমান বলেন, একটি আধুনিক ফার্নিচারের ব্র্যান্ড হিসেবে হাতিল তার প্রতিটি পণ্যে অল্প অলঙ্করণে রুচিশীল ডিজাইন ফুটিয়ে তোলে। হাতিলের প্রসিদ্ধ ট্যাগ লাইন ‘স্লিম ইজ স্মার্ট’ হাতিলের নিজস্ব চিন্তা, দর্শন এবং আধুনিকতারই প্রকাশ। হাতিল আকর্ষণীয় ডিজাইনের ফার্নিচার তৈরির পাশাপাশি পরিবেশের ভারসাম্যের বিষয়েও সচেতন।

প্যাভিলিয়নে প্রদর্শিত ফার্নিচারের সৌন্দর্য দেখে যে কেউ বুঝতে পারবে হাতিল এগুলো তৈরিতে কতটা আন্তরিক। কতটা পরিশ্রমের ফলে এগুলো দেখতে মার্জিত, দৃষ্টিনন্দন, সরল, বিশ্বব্যাপী অনুপ্রাণিত এবং আধুনিক হয়েছে। আর ব্যবহারের দিক দিয়ে এগুলো কতটা আরামদায়ক, মজবুত এবং টেকসই। এমন আধুনিক ডিজাইন, সূক্ষ্ম কারিগরি এবং সুলভ মূল্যের নিখুঁত সমন্বয় বাংলাদেশের ফার্নিচার শিল্পে বিরল ব্যাপার। হাতিল সোফা, ডাইনিং সেট, বেডরুম সেটের মতো সবরকম ফার্নিচারের ক্ষেত্রে এবার নতুন ডিজাইন নিয়ে এসেছে। হাতিলের সোফা আপনার ঘরের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেয়। হাতিলের ডাইনিং সেটগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেন সবাই একসঙ্গে সানন্দে ব্যবহার করতে পারে। হাতিলের বেডরুম সেটগুলো আপনাকে নিজের মতো করে অন্তরঙ্গ বিশ্রামের সুযোগ করে দেবে। যাপিত ডেস্ক

নির্বাচিত সংবাদ