১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

৮২ হাজার ৭০৩ কোটি টাকার সংশোধিত এডিপি আসছে

  • সরকারী তহবিলের টাকা বাড়ছে, বৈদেশিক সহায়তা কমছে ॥ বরাদ্দ বাড়ছে পদ্মা সেতু প্রকল্পে

হামিদ-উজ-জামান মামুন ॥ আকার বাড়ছে সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর (আরএডিপি)। থোকসহ মূল এডিপি ৮০ হাজার ৩১৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা থেকে দুই হাজার ৩৮৯ কোটি ১৮ লাখ টাকা বেড়ে সংশোধিত এডিপির আকার দাঁড়াচ্ছে ৮২ হাজার ৭০৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। বৈদেশিক সহায়তা বরাদ্দের অংশ কমলেও সরকারের নিজস্ব তহবিলের এবং থোক বরাদ্দ বাড়ায় মোট আরএডিপির আকার বাড়ছে বলে পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে মূল এডিপি থেকে বরাদ্দ কমছে ৩৪টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের এবং বরাদ্দ বাড়ানো হচ্ছে ১৭টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের। প্রস্তাবিত এ সংশোধিত এডিপি সত্বরই জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে প্রস্তুতিও শেষ করে এনেছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে জানতে বিশ্বব্যাংকের লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন বলেন, বাস্তবতা ও সামর্থ্যরে সঙ্গে সমন্বয় না করেই বছরের প্রথমদিকে বরাদ্দ দেয়া হয়। পরবর্তীতে বরাদ্দের অর্থ পুরোপুরি ব্যয় করতে পারে না সংস্থা ও মন্ত্রণালয়গুলো। এজন্য প্রতিবছরই বরাদ্দের বড় একটা অংশ ছেঁটে ফেলা হয়। অর্থবছরের প্রথম ৬ মাস রাজনৈতিক অস্থিরতাসহ তেমন কোন প্রতিবন্ধকতা ছিল না। তারপরও এডিপি বাস্তবায়নের গতি খুব একটা ভাল নয়। জানুয়ারি থেকে যে অবরোধ শুরু হয়েছে তা চলমান থাকলে অবশ্যই উন্নয়ন প্রকল্পের গতিকে বাধাগ্রস্ত করবে। এছাড়া বছরের প্রথম থেকেই এডিপি বাস্তবায়নে গতি এলে খুব বেশি অংশ ছেঁটে ফেলার প্রয়োজন পড়ত না। এ অবস্থায় সংস্থা ও মন্ত্রণালয়গুলোকে এডিপি বাস্তবায়নে সক্ষমতা ও তৎপরতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে হবে।