১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছে ড্রোনের ব্যবহার

মোঃ মোখলেছুর রহমান ॥বাংলাদেশ সরকারের প্রতিরক্ষা ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট ও নেদারল্যান্ডসের টোয়েন্ট বিশ্ববিদ্যালয় এবং আন্তর্জাতিক ভুট্টা ও গম উন্নয়নকেন্দ্র যৌথভাবে ‘স্টারস’ প্রকল্পের আওতায় দেশের কৃষি গবেষণায় আধুনিক, উন্নত এবং কার্যকর প্রযুক্তি মানুষবিহীন এ যান ব্যবহার শুরু হয়। জমিতে পরিমিত সার প্রয়োগ এবং রোগ-পোকামাকড়ের আক্রমণ দমন করার বার্তা বা তথ্য সংগ্রহের জন্য এই যানটি ব্যবহার করা হচ্ছে।

ড. জিয়াউদ্দিন আহমদ জানান, শুধু কৃষি গবেষণায় ব্যবহৃত যানটি (ড্রোন) রিমোট কন্ট্রোল প্রোগ্রাম নিয়ন্ত্রিতভাবে ক্ষেতের ৬০ মিটার উপর দিয়ে উড়ে যায় এবং একই সঙ্গে ধান, গম, ভুট্টা ও মুগডালসহ বিভিন্ন ফসলের স্থির ছবি, ভিডিও সংগ্রহ করে।

এই গবেষণার মাধ্যমে নীলগঞ্জের কুমিরমারা খালের পানি এবং পূর্ব আমীরাবাদ গ্রামের জমির লবণাক্ততা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য অত্যাধুনিক ইএম-৩৮ যন্ত্র ব্যবহার করা হচ্ছে। যন্ত্রের মাধ্যমে গবেষণার প্লটের একটি মানচিত্র নির্ধারণ করা হয়। লবণের মাত্রা নির্ধারণের সেই মানচিত্রানুযায়ী কখন কোন সময় কোন ধরনের পানি এবং কী উপায়ে মাটির এবং পানির লবণাক্ততা রোধ বা হ্রাস করা যায়, এ বিষয়েও কৃষকদের একটি নির্দেশিকা দেয়া হবে।

আন্তর্জাতিক ভুট্টা ও গম উন্নয়ন কেন্দ্রসহ অন্যান্য দাতা সংস্থার সহায়তায় গত ১৪ ডিসেম্বর জার্মানি থেকে কৃষি গবেষণার জন্য দুটি ড্রোন সংগ্রহ করা হয়। ড্রোন পরিচালনার জন্য জার্মানি থেকে বিশেষ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন গবেষক ড. জিয়াউদ্দিন আহমদ।