২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভাবনায় শিশু দিবস

প্রতিযোগিতায় অংশ নেব

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন। এ দিন আবার শিশু দিবসও। প্রতিবছর এদিন আমাদের স্কুলে র‌্যালি হয়। কিন্তু এখন হরতালের কারণে আমার বাইরে বের হতে ভয় লাগে। তবে স্কুলে না আসলে আরও বেশি মন খারাপ লাগে। তাই স্কুলে যাব। স্কুলের অন্যান্য ছাত্রছাত্রী এবং শিক্ষকও থাকবেন। স্কুলে কেক কাটা হয়। ছবি আঁকার প্রতিযোগিতা হয়। এবারও স্কুলের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করব। এই আমার ১৭ মার্চের উদযাপন।

হাসান

গ্রীনউডস স্কুল, ৭ম শ্রেণী

মৌলিক অধিকার রক্ষা করতে হবে

শিশু দিবসে আমরা সাত বান্ধবী মিলে একটি প্লান করেছি। আমাদের আশপাশেই এমন কিছু শিশু আছে যারা পড়তে-লিখতে চায়, কিন্তু সেই সুযোগটা তাদের নেই। আর সেই শিশুদের নিয়েই আমাদের পরিকল্পনা। আমরা কিছু বই-খাতা কিনেছি তাদের দেয়ার জন্য।

জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বিশ্বের প্রতিটি শিশু ও ঝিলিমিলির ছোট্ট বন্ধুদের জানাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

রিনা রানী

নিউ সান স্কুল, ৭ম শ্রেণী, রাজশাহী

শিশুরাই সব

শিশু মানে ভবিষ্যত পৃথিবী সুন্দরভাবে পরিচালনার কারিগর। আজকের শিশুরাই আগামীর বিশ্বকে সুন্দরভাবে গড়ে তুলবে। তাই তো শিশুদের আগেই প্রশিক্ষণ দিতে হবে কিভাবে ভবিষ্যত বিশ্বকে সুন্দর করা যায়। শিশুরা চায় একটু স্নেহ, মায়া, ভালবাসা তবেই শিশুরা জীবনে উন্নতি করতে পারবে। কিন্তু হরতালের কারণে সঠিক রুটিন অনুযায়ী এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারছি না। সবাই জানে আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যত। তাই এই ভবিষ্যতকে সুন্দর করার জন্য সকলের সাহায্য কামনা করছি।

সজীব হাসান

গবর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, ১০ম শ্রেণী