২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুপ্রীমকোর্ট বারে পরাজয়ের জন্য এ্যাটর্নি জেনারেলকে দুষলেন মেহেদী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সদ্য অনুষ্ঠিত সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নিজের পরাজয়ের জন্য এ্যাটর্নি জেনারেলকে দায়ী করেছেন সম্পাদক পদে পরাজিত সরকার সমর্থক প্রার্থী মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী। বুধবার সুপ্রীমকোর্টে ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য এই দাবি করেন।

তবে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেহেদী স্বীকার করেন, এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত ‘সমস্যা’ রয়েছে, ভোটের সময় তা ‘রাজনৈতিক সমস্যায়’ রূপ নিয়েছিল। তবে মেহেদীর এই অভিযোগের বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে মাহবুবে আলমের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

গত ১৫ ও ১৬ মার্চ অনুষ্ঠিত সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সর্বশেষ নির্বাচনে দ্বিধাবিভক্ত সরকার সমর্থক আইনজীবীরা একটি প্যানেল দিলেও আবারও হারে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের কাছে। সরকার সমর্থক প্যানেল সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন সাবেক সম্পাদক মেহেদী। তিনি প্রায় ৪০০ ভোটে হারেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকনের কাছে। মেহেদী বলেন, ‘এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও বিএনপির প্রার্থী মাহবুবউদ্দিন খোকনের মিলিত ষড়যন্ত্রের কারণে আমি ও আমার প্যানেলের অধিকাংশ প্রার্থী পরাজিত হয়।’ এ্যাটর্নি জেনারেলকে দায়ী করার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘সমন্বয় পরিষদের নেতৃবৃন্দ ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন পরিচালিত হয়েছে এ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস থেকে।’ তিনি বলেন, ‘অন্যদিকে এ্যাটর্নি জেনারেলের সঙ্গে প্রতিনিয়ত রাতের বেলা গোপনে শলা পরামর্শ ও গোপন বৈঠক করে আমাকে হারানো হয়েছে। এ্যাটর্নি জেনারেল সবাইকে বলেছেন, সভাপতি প্রার্থীকে ভোট দিতে, আমার বিষয়ে জানতে চাইলে বলেছেন- ‘মেহেদী তো একবার সেক্রেটারি হয়েছে।’ নির্বাচনের পর তিনি বিভিন্ন জনের কাছে বলেছেন, ‘মেহেদীকে সাইজ করবে না তো কাকে সাইজ করবে।’

আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবী নেতাদের দুই ভাগে বিভক্ত করে রাখার ক্ষেত্রেও সুপ্রীমকোর্ট বারের সাবেক সভাপতি মাহবুবে আলমের ভূমিকা রয়েছে বলে দাবি করেন দলের কেন্দ্রীয় এই নেতা। তিনি বলেন, ‘এ্যাটর্নি জেনারেলের ইঙ্গিতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ৩০০ জন ভোটার ও আইনজীবী আমাকে ভোট না দিয়ে মাহবুবউদ্দিন খোকনকে ভোট দিয়েছে।’

বার সম্পাদক খোকনকে নিয়ে এ্যাটর্নি জেনারেল অনেক যোগ্য আইনজীবীকে হাইকোর্টে কাজ করার সুযোগ দিতে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছেন বলেও অভিযোগ মেহেদীর। তিনি বলেন, ‘এ্যাটর্নি জেনারেল ও মাহবুবউদ্দিন খোকনের যৌথ ষড়যন্ত্রে বার কাউন্সিল ধ্বংস হচ্ছে। এ্যাটর্নি জেনারেল আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করেছেন। তার নীলনক্সা একটাই, সুপ্রীমকোর্ট বার ও বার কাউন্সিলে আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করা।’ মাহবুবে আলম এ্যাটর্নি জেনারেল পদে থাকলে সুপ্রীমকোর্ট বারে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা কখনও জয়ী হতে পারবে না বলেও ভবিষ্যদ্বাণী করেন মেহেদী।

উল্লেখ্য, ২০১২-১৩ সালে যখন মেহেদী সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন, তখন এ্যাটর্নি জেনালের দায়িত্বে মাহবুবে আলমই ছিলেন। তবে সেবারও সভাপতিসহ বেশিরভাগ পদে জয়ী হয়েছিল বিএনপি সমর্থকরা।