২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে লেনদেন ৫শ’ কোটি টাকা ছাড়াল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে সব ধরনের বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বেড়েছে। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার ৫৩৮ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা সাড়ে ৪ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ডিএসইতে ৫১৩ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। সেই দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ২৫ কোটি টাকা বা ৪ দশমিক ৮৭ শতাংশ।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, বৃহস্পতিবারে ডিএসইতে মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন শুরু হলেও কিছু কিছু কোম্পানির মূল্য সংশোধনের ঘটনা ঘটেছে। ফলে দিনশেষে সূচকের মিশ্র প্রবণতা দেখা গেছে। একই চিত্র দেখা গেছে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেরও ক্ষেত্রে। ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে আগের দিনের চেয়ে ৬৮ কোটি ৭৮ লাখ টাকা বা ১৪ দশমিক ৬৪ শতাংশ। বুধবার এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৪৬৯ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩১০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪২টির, কমেছে ১৩৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির শেয়ার দর। সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৩৭৩ পয়েন্টে। তবে সেখানকার বাছাই ও শরীয়াহভুক্ত কোম্পানিগুলোর দর কমেছে। ফলে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৬০ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে করছে এক হাজার ৬৬৮ পয়েন্টে।

বৃহস্পতিবারে ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনের সেরা স্থান দখল করেছে জ্বালানি এবং শক্তি খাতের কোম্পানি। এই খাতের মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ১২৩ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের প্রায় ২৬ ভাগ। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল বস্ত্র খাতের কোম্পানি। সারাদিনে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৭৫ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের প্রায় ১৬ ভাগ। তৃতীয় অবস্থানে ছিল প্রকৌশল খাতটি। সারাদিনে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৬৭ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের প্রায় ১৪ ভাগ।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনস এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, শাশা ডেনিমস, এমজেএল বাংলাদেশ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, এসিআই লিমিটেড, ইফাদ অটোস, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, সাইফ পাওয়ারটেক, বেক্সিমকো এবং সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : জাহিন টেক্সটাইল, আরএকে সিরামিক, ফারইস্ট লাইফ, পিপলস লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স লিমিটেড, ইসলামিক ফাইন্যান্স, ইউনাইটেড পাওয়ার, এবি ব্যাংক, নদার্ন জুটস, শাশা ডেনিমস ও প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : যমুনা ব্যাংক, পপুলার ১ম মিউচ্যুয়াল ফান্ড, আর্গন ডেনিমস, সমতা লেদার, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক, শ্যামপুর সুগার মিলস, ৮ম আইসিবি, ন্যাশনাল টি, রূপালী ব্যাংক, ফনিক্স ফাইন্যান্স ১ম মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

বৃহস্পতিবার সিএসইতে ৩৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৪৪০ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১০২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির।

সিএসইতে লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড পাওয়ার এ্যান্ড জেনারেশনস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, বেক্সিমকো, মবিল যমুনা বাংলাদেশ, শাশা ডেনিমস, সাইফ পাওয়ার টেক, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, আরএকে সিরামিক, স্কয়ার ফার্মা ও এসিআই।