১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাল্টিমোর থেকে কার্ফু তুলে নেয়ার আহ্বান

পুলিশের হেফাজতে এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পরদিন শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোর শহরের বিক্ষোভকারীরা নেচে-গেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে। ছয় পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগটি আনা হয়। এ সময় তারা এই সড়ক আমাদের বলে সেøাগান দেয়। ওইদিন বাল্টিমোরের কার্ফু ভেঙে ফেলে তারা। খবর এএফপির।

পুলিশ হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক ফ্রেডি গ্রের মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করে বাল্টিমোরে বিক্ষোভ হয়। শনিবার মেরিল্যান্ডের বাল্টিমোরের সিটি হলের সামনে অনেক শ্বেতাঙ্গ এবং কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জড়ো হয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে থাকে। বাল্টিমোরের সিটি হলের সামনে অবস্থান নেয়া অটাম হুপার নামে ২৫ বছর বয়সী এক আফ্রিকান-আমেরিকান নারী বলেন, কি হচ্ছে এসব ভেবে আমরা হতাশ ছিলাম। এখন আমরা পুলিশের বর্বরতা বন্ধ করতে চাই। আমরা শান্তি চাই। এ সময় বিক্ষোভকারীরা বাল্টিমোরে আরোপিত কার্ফু তুলে নেয়ার আহ্বান জানায়। শহরটির ব্যবসায়ীরা জানায় কার্ফুতে তাদের ব্যবসার ক্ষতি হচ্ছে। অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় মানবাধিকার সংগঠন এসিএলইউর ম্যারিল্যান্ড শাখা এক বিবৃতিতে কার্ফু তুলে নেয়ার পক্ষে মত দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, আসলে যে উদ্দেশ্য নিয়ে কার্ফু জারি করা হয়েছিল তা সাধিত হচ্ছে না।

শুক্রবার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ও পুলিশের নিজস্ব তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মসবি ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার ঘোষণা দেন। গত ১২ এপ্রিল ২৫ বছর বয়সী কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ ফ্রেডি গ্রেকে গ্রেফতারের পর নিজেদের ভ্যানে তুলেছিল পুলিশ। ওই ভ্যানেই ঘাড়ে গুরুতর আঘাত পান গ্রে। এরপর তাকে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।