২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শাহাদাত এখন শুধুই ব্যাটসম্যান!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুই টেস্ট দলের বাইরে কাটানোর পর আবারও ফিরেছিলেন পেসার শাহাদাত হোসেন রাজিব। কিন্তু সেই ফেরাটা সুখকর হলো না তার। শুরুতেই ইনজুরিতে পড়লেন। মিরপুরে বুধবার সফরকারী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনেই ছিটকে গেছেন তিনি দলের বাইরে। দুই বল ছুড়েই ইনজুরিতে পড়েছিলেন, পরে সুস্থ হয়ে ১৭তম ওভারে ফিরেও আসেন। কিন্তু মধ্যাহ্ন বিরতির সময় বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিকের সঙ্গে অনুশীলন করার সময় আবারও ইনজুরি! পরে স্ট্রেচারে করে তাকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। আর ফিরতে পারেননি। বিসিবি সূত্রে জানা গেছে চলতি টেস্টে আর বোলিংই করতে পারবেন না শাহাদাত। তবে ব্যাটিং করতে পারবেন তিনি। পেসার শাহাদাত তাই চলতি টেস্টে এখন শুধু ব্যাটসম্যান।

দীর্ঘ দেড় বছর দলের বাইরে থাকার পর গত ডিসেম্বরে জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দলে ফিরেছিলেন ২৮ বছর বয়সী ডানহাতি পেসার শাহাদাত। কিন্তু দুই টেস্টে ভাল নৈপুণ্য দেখাতে ব্যর্থ হন। এ কারণে এবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টেও স্কোয়াডে থাকলেও খেলার সুযোগ পাননি একাদশে। তবে আরেকবার ভাগ্য সদয় হলো তার ওপর। এবার নির্ভরযোগ্য পেসার রুবেল হোসেন ইনজুরিতে পড়ার কারণে তার পরিবর্তে মিরপুর টেস্টেও একাদশে জায়গা করে নেন তিনি। কিন্তু প্রথম দিনের প্রথম ওভারেই আবার ইনজুরিতে পড়লেন তিনি। দিনের প্রথম বলেই হাঁটুতে আঘাত পেয়েছিলেন। যদিও পরে দ্বিতীয় বলটি করেন। এরপরই মাঠে হাঁটু গেড়ে পড়ে যান শাহাদাত। জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজেদুল ইসলাম মাঠেই তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সেরে তোলার প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন। তা সম্ভব না হওয়াতে শেষ পর্যন্ত মাঠের বাইরে চলে যেতে হয়েছিল শাহাদাতকে।

ইনিংসের ১৭তম ওভারে আবারও মাঠে প্রবেশ করেন শাহাদাত। বোলিং অবশ্য আর করেননি মধ্যাহ্ন বিরতির আগে। তবে দুর্দান্ত একটি ক্যাচ ধরেছেন। তাইজুল ইসলামের বলে মিডউইকেটে নিজের বাঁদিকে দৌড়ে গিয়ে সামি আসলামের ক্যাচ লুফে তাকে সাজঘরে পাঠান। তখন ধরেই নেয়া হয়েছিল পুরোপুরি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছেন এ পেসার। তবে অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম তাকে দিয়ে আর বোলিং করাননি মধ্যাহ্ন বিরতির আগে। মাঝ বিরতির সময় শাহাদাতকে পুরোপুরি প্রস্তুত করার জন্যই পেস বোলিং কোচ স্ট্রিক শাহাদাতকে নিয়ে মাঠে প্রবেশ করেছিলেন। প্র্যাকটিস উইকেটে বোলিং করে নিজেকে ঝালিয়ে নিচ্ছিলেন শাহাদাত। আর এ সময়ই ঘটলো দুর্ঘটনা। তিন বল করার পরই আবার উইকেটে আছড়ে পড়েন তিনি। দীর্ঘ সময় ধরে তাকে সেখানেই শুশ্রƒষা দিয়ে সুস্থ করে তোলার চেষ্টা চালানো হয়েছে। কিন্তু উঠেও দাঁড়াতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত স্ট্রেচারে করে শাহাদাতকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার বিষয়ে বিসিবির চিকিৎসক ড. দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন শাহাদাতের হাঁটুর স্ক্যান করানো হচ্ছে।

স্ক্যান রিপোর্ট পাওয়ার পরই শাহাদাতের চূড়ান্ত অবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে বিসিবি সূত্রে যতদূর জানা গেছে প্রথম দিন তো বটেই মিরপুর টেস্টেই আর বোলিং করতে নামার সম্ভাবনা ক্ষীণ শাহাদাতের। এর অর্থ দুই বলেই শেষ হয়ে গেল এ ডানহাতি পেসারের প্রত্যাবর্তন ম্যাচ। বাংলাদেশ দলকেও এখন পুরো টেস্টে খেলতে হবে এক স্পেশালিস্ট পেসার নিয়ে। যদিও শাহাদাতের পরিবর্তে মিডিয়াম পেস করতে সক্ষম সৌম্য সরকারকে দিয়ে বোলিং করানো হয়েছে। নবাগত মোহাম্মদ শহীদেও সহযোগী হিসেবে এখন সৌম্যেও ওপরই বাংলাদেশ দলের পেস বোলিং বিভাগকে নির্ভর করতে হবে। তবে ব্যাটিং করতে পারবেন তিনি এমনটাই জানা গেছে।