১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই ঘন্টায়    
ADS

জুন থেকে শ্যালা নদীতে নৌ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে শাজাহান খান

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেল পুরোপুরি চালু হওয়ার পর জুন মাস থেকে শ্যালা নদীতে নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। মঙ্গলবার সচিবালয়ে মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে নৌযান চলাচল নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি।

গত ৯ ডিসেম্বর সুন্দরবনে শ্যালা নদীতে তেলবাহী ট্যাঙ্কারডুবিতে পরিবেশ ও প্রাণিকূলের ব্যাপক ক্ষতির পর মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেল দ্রুত চালুর দাবি ওঠে।

সংবাদ সম্মেলনে নৌমন্ত্রী জানান, গত দেড় দশক ধরে মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে নৌপথের নাব্য হ্রাস পাওয়ায় নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ৮৭ কিলোমিটার অতিরিক্ত পথ পাড়ি দিয়ে সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে শ্যালা নদী দিয়ে নৌযান চলাচল করত।

গত বছরের ১ জুলাই মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে নৌপথ খনন শুরুর পর এ পর্যন্ত ১১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৩ কিলোমিটার খনন করা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। খননকৃত নৌপথে ভাটার সময় ১২০/১৫০ ফুট প্রশস্ত ও ৮/১০ ফুট গভীর পানি থাকে। গত ৬ মে থেকে পরীক্ষামূলকভাবে নৌপথ খুলে দেয়ার পর এ পর্যন্ত ২৭৬টি নৌযান চলাচল করেছে।

২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নদী খননের ওপর জোর দেন জানিয়ে নৌমন্ত্রী বলেন, ওই সময়ে ৫৩টি রুটের খনন কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়। প্রথম পর্যায়ে মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলসহ ২৪টি নৌপথ খননের বরাদ্দ দেয়া হয়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আগামী জুনে পুরোপুরি মংলা-ঘষিয়খালী চ্যানেল চালুর পর শ্যালা নদী দিয়ে নৌযান চলাচল বন্ধ হবে বলে আশা করছি।