১৫ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওষুধ চোরাচালান ও ভেজাল বন্ধে উচ্চ আদালতের রুল

স্টাফ রিপোর্টার॥ লাইসেন্সবিহীন ওষুধ বিতরণ ও অস্ত্রোপচারের যন্ত্রপাতি চোরাচালান বন্ধ এবং ভেজাল ওষুধ তৈরি রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ‘কর্তৃপক্ষের নিস্ক্রিয়তা’ কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট।

একটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি করে বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের বেঞ্চ মঙ্গলবার এই রুল দেয়।

স্বাস্থ্য সচিব, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও পরিচালককে চার সপ্তাহের মধ্যে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গত ৮ মে একটি দৈনিকে ‘আসছে ব্যবহৃত সুই-সিরিঞ্জ’ এবং ২ মার্চ ‘মানহীন সার্জিক্যাল পণ্যের ছড়াছড়ি সারাদেশে’ শিরোনামে প্রকাশিত দুটি প্রতিবেদন যুক্ত করে বেসরকারি সংস্থা সোশাল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট চেইঞ্জে′র সেক্রেটারি গোলাম সারওয়ার এই রিট আবেদন করেন।

তার পক্ষে আদালতে শুনানি করেন এসএম জহুরুল ইসলাম। তাকে সহায়তা করেন মিজানুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস।

আদেশের পর জহুরুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সংবাদপত্রে বিভিন্ন খবর প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ ওষুধসহ ব্যবহৃত সিরিঞ্জ আবারও ব্যবহার রোধে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়ছে।”

এসব কারণে ‘বিবাদীদের নিস্ত্রিয়তা’ চ্যালেঞ্জ করে এ রিট আবেদন করা হয়েছে বলে জানান জহুরুল।