১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্র্যাক নেপালে ভূমিকম্প দুর্গতদের ১২ কোটি টাকা অনুদান দেবে

  • আগামী দু’বছরে ১৫ কোটি টাকার তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নেপালে ভূমিকম্পদুর্গতদের জন্য তাৎক্ষণিক সহায়তা হিসেবে ১২ কোটি টাকা অনুদান দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশী বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। নিজস্ব তহবিল থেকে আট কোটি এবং ব্র্যাক, ব্র্যাক ব্যাংক এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত লক্ষাধিক কর্মীর ১ দিনের বেতন (চার কোটি টাকা) অনুদান হিসেবে দেয়া হবে। এছাড়া দুর্গতদের পুনর্বাসন, জীবিকার ব্যবস্থা করাসহ দীর্ঘমেয়াদী সহায়তার অংশ হিসেবে আগামী দুই বছরে আরও ১০৫ কোটি টাকা ব্যয়ের সিদ্ধান্তও নিয়েছে ব্র্যাক।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন কর্মকর্তারা এসব তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তাবিত সহায়তা কার্যক্রমের লিখিত রূপরেখা তুলে ধরেন ব্র্যাকের উর্ধতন পরিচালক আসিফ সালেহ। এ সময় ব্র্যাকের প্রধান অর্থবিষয়ক কর্মকর্তা এসএন কৈরী এবং ড. আকরামুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার কাছ থেকে আগামী দুই বছরে ১০৫ কোটি টাকার তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। নেপালের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ও দুর্গম এলাকা নোয়াকটে দুর্গতদের সহায়তায় ব্র্যাক এ অর্থ ব্যয় করবে। এর মধ্যে পাঁচ হাজার পরিবারের জীবিকা নির্বাহে সহায়তা, ৩০ হাজার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে মনো-সামাজিক কাউন্সিলিং প্রদান, শারীরিকভাবে পঙ্গুত্ববরণ করা ২০০ মানুষকে পুনর্বাসনে সহায়তা করা হবে। নোয়াকটে মোট দুই হাজার খানার (হাউসহোল্ড) মানুষকে অস্থায়ী বসতি করে দেয়া হবে। পরবর্তীতে ভূমিকম্প প্রতিরোধক স্থাপনা নির্মাণ করে এদের পুনর্বাসন করা হবে। ব্র্যাক কর্মকর্তাদের দাবি, বাংলাদেশের কোন বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থার পক্ষ থেকে অন্য দেশের মানবিক বিপর্যয়ে এতবড় সহায়তার উদ্যোগ এটাই প্রথম।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ব্র্যাক কর্মকর্তারা বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় বীজ ও সার বিতরণ, নার্সারি তৈরি, খাদ্যশস্যের গুদাম তৈরি, পোল্ট্রি ও গবাদিপশুর খামার তৈরি, মুদি দোকানসহ বিভিন্ন ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্য অনুদান প্রদান করা হবে। পাশাপাশি পাঁচ হাজার খানার সদস্যদের দেয়া হবে জীবিকা ভাতা। তারা বলেন, ভূমিকম্পের পরপরই এ্যান্টিবায়োটিকসহ প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র বাবদ ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের তহবিল থেকে প্রাথমিকভাবে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার অনুদান দেয়া হয়েছে। ব্র্যাকের নেতৃত্বে একটি মেডিক্যাল টিম বর্তমানে নেপালে অবস্থান করছে। তারা নেপাল সরকার ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় রক্ষা করে ধোলেখাল, ভক্তপুর, সিন্ধুপালচক, ললিতপুর ও কাঠমান্ডুতে জরুরী চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছে। নেপাল দূতাবাসের সুপারিশ অনুযায়ী পাঁচ হাজার কম্বলও পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, দুর্যোগ পরবর্তী জরুরী উদ্ধার তৎপরতা ও সেবাদানে ব্র্যাকের অভিজ্ঞতা রয়েছে। ২০১০ সালে হাইতিতে ভূমিকম্প ও ২০০৪ সালে ইন্দোনেশিয়া ও শ্রীলঙ্কায় সুনামির পর ব্র্যাকের টিম সেখানে সফলভাবে কাজ করেছে।