২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাকা চৌধুরীর আপীল মামলায় আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক শুরু

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক মৃত্যুদ-প্রাপ্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরীর আপীল মামলায় আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক শুরু হয়েছে। আসামিপক্ষে আইনজীবী এসএম শাহজাহান যুক্তিতর্ক শুরু করেছেন। আজ সোমবার পুনরায় তিনি যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপীল বিভাগের চার সদস্যের আপীল বেঞ্চ এ যুক্তিতর্ক চলছে। বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

রবিবার আদালতে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে আদালত যুক্তি তুলে ধরেন আইনজীবী এএসএম শাহজাহান। তিনি সাকার বিরুদ্ধে দেয়া ২, ৩ নম্বর সাক্ষীদের দেয়া সাক্ষ্যের অসামঞ্জস্য বিষয় নিয়ে আদালতে শুনানি করেন। পরে শুনানি শেষে আদালত আজ সোমবার পর্যন্ত এ মামলার কার্যক্রম মুলতবি ঘোষণা করে। এর আগে গত ১৬ মে আদালতে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে আপীল শুনানি শুরু করে তার প্রধান আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। ট্রাইব্যুনালে মৃত্যুদ-াদেশ পাওয়ার পর ২০১৩ সালের ২৯ অক্টোবর এ রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করেন সাকার আইনজীবীরা। আপীল আবেদনে মোট ১ হাজার ৩২৩ পৃষ্ঠার নথিপত্রে বিভিন্ন ডকুমেন্টসহ ২৭টি গ্রাউন্ড রয়েছে। ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনাল-১ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীরের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে মৃত্যুদ- প্রদান করেন। সর্বমোট ১৭২ পৃষ্ঠার রায়ে তাকে এ শাস্তি দেয়া হয়।

তার বিরুদ্ধে আনীত ২৩টি অভিযোগের মধ্যে ৯টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। আর বাকি ১৪টি প্রমাণিত হয়নি। প্রমাণিত অভিযোগগুলো হলো ২,৩,৪,৫,৬,৭,৮,১৭,১৮ নম্বর। এর মধ্যে ৩,৫,৬ এবং ৮ নম্বর অভিযোগে তাকে ফাঁসি দেয়া হয়েছে। আর ২,৪,৭ অভিযোগে ২০ বছর করে কারাদ- দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া ১৭ এবং ১৮ নম্বর অভিযোগে পাঁচ বছর করে কারাদ- দেয়া হয়েছে।