১৮ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গফরগাঁও টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজে হামলা ॥ ভাংচুর লুট

  • উৎকণ্ঠায় শিক্ষার্থী অভিভাবক

নিজস্ব সংবাদদাতা, গফরগাঁও, ৬ জুলাই ॥ ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌরশহরে গফরগাঁও টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে তালা ঝুলিয়ে দেয় সন্ত্রাসীরা। এতে কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। শিক্ষক শিক্ষার্থীরা সন্ত্রাসীদের ভয়ে কলেজে ঢুকতে পারছে না। ঘটনাটি ঘটে গত রবিবার সন্ধ্যায়। কলেজ পরিচালনা কমিটির একটি পক্ষ কলেজটি উচ্ছেদ করার উদ্দেশ্যে ভাড়াটিয়া গু-া বাহিনীর মাধ্যমে এ কাজ করে বলে অভিযোগ করে কলেজের ছাত্র-শিক্ষক, অভিভাবকরা। রহস্যজনক কারণে থানা পুলিশসহ উপজেলা প্রশাসন ও শিক্ষা বিভাগের লোকজন নীরব ভূমিকা পালন করছে। এ ঘটনায় চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে কলেজের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক। পৌরশহরের শহীদ মিনার সংলগ্ন কলেজ রোডে গফরগাঁও টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধিনে উচ্চ মাধ্যমিক ব্যবসা শিক্ষা শাখায় কম্পিউটার অপারেশন ও সেক্রেটেরিয়াল সাইন্স বিষয়ে দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে। বর্তমানে কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক (কারিগরি শাখা) একাদশ শ্রেণীতে দেশের অন্যান্য কলেজের মতো ভর্তি কার্যক্রম চলছে। সোমবার সকালে ছাত্র-শিক্ষক কলেজে এসে দেখতে পায় তালা মারা, সাইন বোর্ড উধাও। কলেজ ভবনের টিনের বেড়া রামদার আঘাতে ক্ষত বিক্ষত। ক্ষত বিক্ষত ফাঁক দিয়ে দেখা যায় কলেজে ভাংচুর ও লুটপাটের চিহ্ন। এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রবিবার সন্ধ্যায় ১৫-২০ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে কলেজে তালা লাগিয়ে দেয়। প্রকাশ্যে কারিগরি কলেজে সশস্ত্র হামলার ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হামলাকারীরা ভাংচুর করার সময় পাশের এক ব্যবসায়ী অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা কলেজে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ এই মর্মে কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতির একটি নোটিসে কলেজের প্রধান ফটকে টানিয়ে দেয়। এদিকে কলেজটি বন্ধ করে দেয়ায় ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকরা চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছে। কলেজের অধ্যক্ষ মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির লোকজন বেশ কিছুদিন যাবত কলেজটি উচ্ছেদ করার উদ্দেশ্যে আমাদের কলেজ থেকে বের হয়ে যাওয়ার জন্য সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে হুমকি দিয়ে আসছে।

নওগাঁয় এক ফার্মাসিস্ট ॥ একের ভেতর চার

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ৬ জুলাই ॥ নওগাঁর পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ফার্মাসিস্ট সেলিম আখতারের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি ওই হাসপাতালের কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার রোগীকে চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানি করলেও ফার্মাসিস্ট বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এই বিষয়টিই তার জন্য কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। তার নিজের দীর্ঘ ২৫ বছরের অনিয়ম দুর্নীতির খবর চাউর হয়ে পড়েছে। আর এসব কিছুই তিনি প্রভাব খাটিয়ে এবং উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে পাঠিয়ে আমসহ নানা উপঢৌকন পাঠিয়ে সকল অপকর্ম ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছেন। এই আম সরবরাহ করছেন হাসপাতালের পিয়ন শাহাদতের মাধ্যমে। জানা গেছে, ফার্মাসিস্ট সেলিম প্রায় ২৫ বছর ধরে ওই হাসপাতালে চাকরি করছেন। সেখানেই তার শ্বশুরবাড়ি। দীর্ঘদিন ধরে তিনি হাসপাতালের সরকারী কোয়ার্টারে বসবাস করছেন। মজার ব্যাপার হলো, তিনি যে বাসায় বসবাস করেন, সেই বাসা কারও নামে বরাদ্দ নেই। এমনকি তার নিজের নামেও বরাদ্দ নেই। তাকে ওই বাসার ভাড়া বা বিদ্যুত বিল পরিশোধ করতে হয় না। এসব পরিশোধ করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সেলিম আখতার শুধু ফার্মাসিস্ট নয়, একাধারে তিনি ওই হাসপাতালের অফিস সহকারী, কম্পিউটার অপারেটর, ক্যাশিয়ার এবং স্টোর কীপারের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এসব কারণে তার প্রভাব একচ্ছত্র। ওই হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাও তার ওপর নির্ভরশীল।

ভালুকায় পানিতে ডুবে ছাত্রীর মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভালুকা, ময়মনসিংহ, ৬ জুলাই ॥ ভালুকা উপজেলার ধামশুর গ্রামে সোমবার দুপুরে পানিতে ডুবে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে ।

জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত আমান উল্লাহর কন্যা নবম শ্রেণীর ছাত্রী রিতা আক্তার (১৪) বাড়ির পাশের একটি মাছের খামারে গোসল করতে গিয়ে ডুবে যায়।