২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সাড়ে ৫শ’ কোটি টাকার লেনদেন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রবিবার দেশের উভয় পুঁজিবাজারে সূচকের উর্ধমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। লেনদেনও বেড়েছে দুই বাজারে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৫৫৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের আগে বিনিয়োগকারীদের মুনাফা তোলার প্রবণতা কমে যাওয়ায় আগের তুলনায় শেয়ার বিক্রির পরিমাণ কমেছে। তবে শেয়ারের ক্রেতার পরিমাণও বেড়েছে। দীর্ঘদিন পর মিউচুয়াল ফান্ডগুলোর প্রতি বিনিয়োগকারীদের আলাদা চাহিদা তৈরি হয়েছে, যার কারণে ফান্ডগুলো দরবৃদ্ধির শীর্ষ তালিকায় উঠে এসেছে। তবে ফান্ডগুলোর দরবৃদ্ধিতে সূচকে কোন প্রভাব না থাকায় ডিএসইর সার্বিক সূচক খুব বেশি বাড়েনি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, রবিবার ডিএসইতে আগের দিনের চেয়ে ৭৬ কোটি ৪৯ লাখ টাকার বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৪৭৭ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার। এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এরমধ্যে দর বেড়েছে ১৩৮টির, কমেছে ১৩৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির।

সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পর ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৬১৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৩৬ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮১১ পয়েন্টে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইতে খাতওয়ারী লেনদেনের শীর্ষে ছিল ওষুধ এবং রসায়ন খাত। রবিবারে খাতটিতে মোট ১৭৭ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে, যা মোট লেনদেনের ৩২ দশমিক ৪০ ভাগ। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল প্রকৌশল খাতের কোম্পানিগুলো। সারাদিনে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৬৮ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১২ দশমিক ৩৩ ভাগ। ৬৫ কোটি টাকার লেনদেন করেছে জ্বালানি এবং শক্তি খাতের কোম্পানিগুলো। খাতটি সার্বিকভাবে মোট ১২ শতাংশ লেনদেন করেছে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলোÑ এসিআই লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, গ্রামীণফোন, এসিআই ফরমুলেশন, বেক্সিমকো ফার্মা, বেক্সিমকো, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, ইফাদ অটোস, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ ও হাইডেলবার্গ সিমেন্ট।

রবিবার ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) শেয়ার লেনদেনের পরিমাণ বেড়েছে। সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পর সেখানে মোট ৪৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ২৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ২০০ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এরমধ্যে দর বেড়েছে ২৪৬টির, কমেছে ৯৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১৭টির।