১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত আমরা ॥ তাহির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দারুণভাবে সিরিজ শুরু করলেও এখন উল্টো চাপে পড়েছে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা। টি২০ সিরিজে শতভাগ জয়ের পর প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিক বাংলাদেশকে একেবারে দাঁড়াতেই দেয়নি প্রোটিয়ারা। কিন্তু দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মুখ থুবড়ে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, দাপটের সঙ্গে জিতে সমতা এনেছে টাইগাররা। এ জয়ের পেছনে বাংলাদেশকেই পুরো কৃতিত্ব দিচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিনার ইমরান তাহির। আজ চট্টগ্রামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে এখন চাপের মুখে সফরকারীরা। বাংলাদেশী চ্যালেঞ্জের মুখে প্রোটিয়ারা। কিন্তু যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দল পুরোপুরি প্রস্তুত বলে দাবি করেছেন তাহির। তিনি জানিয়েছেন দলগতভাবে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার ক্ষেত্রেই কোন সময় পিছ পা হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তাহির।

সিরিজের দুই ম্যাচ শেষ। এবার ভেন্যু বদলেছে এবং পরিস্থতিও বদলে গেছে। আজকের বিজয়ী দলই সিরিজ নিজেদের দখলে নিয়ে নেবে। এ কারণে পেছনের সবকিছু ভুলে যেতে চান তাহির। তিনি বলেন, ‘তারা গত ম্যাচে অনেক ভাল খেলেছে এবং আমরা আগামীকাল (আজ) চ্যালেঞ্জের অপেক্ষা করছি। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাব। যেমনটা আপনারা বলছেন আমরা অনেক ভাল ক্রিকেট খেলেছি। আশা করছি ভাল ফলাফলের। গত ম্যাচে কিংবা তার আগের ম্যাচে কি ঘটেছে সেটা নিয়ে আমরা মোটেও চিন্তিত নই। আমরা শুধু আগামীকালের (আজ) ম্যাচ নিয়ে মনোযোগী।’ মিরপুরের উইকেটের সঙ্গে সাগরিকায় তেমন পার্থক্য খুঁজে পাচ্ছেন না তাহির। এখানেও লো স্কোরিং ম্যাচ হবে বলেই মনে করছেন তিনি। এ বিষয়ে তাহির বলেন, ‘আমি কোন পার্থক্য দেখছি না। আমি মনে করি এটা খুব ভাল পিচ। আমি মনে করি ২০০ এর ওপর যে কোন সংগ্রহ খুব ভাল স্কোর হবে। গত ম্যাচে পিচ যেমন আচরণ করেছে সেদিকে যদি দৃষ্টি দেন আমার মনে হয় আপনি ৩০০ রানের লক্ষ্যে এগোতে পারবেন না। তবে এটা নির্ভর করে মধ্যবর্তী ওভারগুলোয় কিভাবে খেলবেন সেটার ওপর। আমার কাছে মনে হচ্ছে ২৫০ খুব ভাল সংগ্রহ হবে।’ দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতে এখন বেশ উজ্জীবিত স্বাগতিক বাংলাদেশ। সে কারণে আজকেও তারা কঠোর প্রতিদ্বন্দ্বিতাই করবে। এ বিষয়ে তাহির বলেন, ‘আমি বলেছি তারা ভাল খেলেছে এবং খেলাটাতে জয় প্রাপ্য ছিল। হ্যাঁ আমি মনে করি যদি আরও কিছু রান করতে পারতাম ভিন্নরকম হতেই পারত। আমাদের এখানে ভাল ক্রিকেট খেলতে হবে। তারা যদি ভাল খেলে সেক্ষেত্রে তারা জিতবে। কিন্তু আমরা এমন একদল যারা চ্যালেঞ্জ দেখে পিছ পা হয় না। সুতরাং আমরা সত্যিই এ চ্যালেঞ্জের দিকে তাকিয়ে আছি।’ তাহির দাবি করেছেন আগের ম্যাচে হারলেও এখন পর্যন্ত দলের সবাই ভাল মেজাজেই আছে এবং কেউ আগের ম্যাচ নিয়ে চিন্তিত নয়। এ বিষয়ে তাহির বলেন, ‘না আমরা এটা নিয়ে মোটেও চিন্তিত নই। আমাদের ক্যাম্পে সবকিছুই ঠিকভাবে চলছে। আমরা খুব সুখী মানুষ। কিন্তু যখনই আমরা মাঠে নামি অবস্থান রাখতে সবসময় লড়াই করি, চ্যালেঞ্জ জানাই।’ চট্টগ্রামেও যে স্পিনারদের জন্য সুবিধাজনক উইকেট হবে সেটা আগেভাগেই জানা ছিল প্রোটিয়া শিবিরের। কিন্তু বিশ্বের যেকোন কন্ডিশনে ভাল খেলতে পারে দক্ষিণ আফ্রিকা এমনটাই দাবি তাহিরের।