১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেখ জামাল ফুটবলারদের ২০ লাখ টাকা ঈদ বোনাস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মান্যবর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে আর পাঁচ ম্যাচ বাকি আছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেডের। দ্বিতীয় স্থানে থাকা শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডের চেয়ে ৭ পয়েন্ট এগিয়ে তারা। লীগের শিরোপা অক্ষুণœ রাখার পথে তাদের সবচেয়ে বড় বাধা এই শেখ রাসেলেই, যাদের আগামী ২১ জুলাই মোকাবেলা করবে শেখ জামাল। এই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে বৃহস্পতিবার শেখ জামাল ক্লাব প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হলো এক ইফতার ও দোয়া মাহফিল। তাতে জামালের খেলোয়াড়দের ভাল খেলতে উৎসাহিত করতে তাদের হাতে ২০ লাখ টাকার ঈদ বোনাস তুলে দেয়া দেয়। ওই নগদ অর্থ গ্রহণ করেন জামালের অধিনায়ক-মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন শেখ জামালের সভাপতি মনজুর কাদের, ম্যানেজার আনোয়ারুল করিম হেলাল, সাবেক ফুটবলার আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নু, আশরাফ, জামালের অন্য খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, ব্যতিক্রম ঈদ উৎসব আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশের ঐতিহ্যবাহী ক্লাব শেখ জামাল ধানম-ি। ২১ জুলাই প্রিমিয়ার লীগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ সামনে রেখে জামালের ফুটবলারদের ছুটি দেয়া হয়নি। খেলোয়াড়রাও ক্লাব সভাপতি, দেশবরেণ্য ক্রীড়া সংগঠক মনজুর কাদেরের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। ঈদ আনন্দের পরই অনুষ্ঠিতব্য ওই ম্যাচের প্রতিপক্ষ অপর জায়ান্ট শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ক্লাব সভাপতির মতে, শিরোপা জয়ে তাদের অন্যতম বাধা শেখ রাসেলকে হারাতে খেলোয়াড়দের প্রাণবন্ত রাখতে ছুটির পরিবর্তে একসঙ্গে ঈদ উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মনজুর কাদেরের মতে, শেখ রাসেলের বিপক্ষে এই ম্যাচটি জামালের জন্য অঘোষিত ফাইনাল।

ইতোমধ্যেই জামালের সব ফুটবলারকে একই রঙের পাঞ্জাবি উপহার দেয়া হয়েছে। ঈদের নামাজ আদায় করবেন সবাই ক্লাবের পাশের মসজিদে একরঙা পাঞ্জাবি পরিধান করে। সভাপতিসহ ক্লাবের অন্য কর্মকর্তারাও শামিল থাকবেন এই আনন্দ উৎসবে। নামাজ পরবর্তী দুপুরে কর্মকর্তা ফুটবলারদের সম্মানে মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন থাকবে মনজুর কাদেরের গুলশানের বাসায়।