১৮ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝলক

বেশিক্ষণ বসে থাকলেই ক্যান্সার

অবসর সময়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কম্পিউটারের সামনে বসে কেটে যায়? বসে বসেই টিভি দেখেন? তাহলে সতর্ক হন। না হলে বিপদ অনিবার্য। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, যে সব মহিলা অফিস ছাড়া অবসর সময়েও বেশিক্ষণ বসে থাকেন, তাদের ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। তবে পুরুষের ক্ষেত্রে এ ভয়টা নেই।

আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটির এক গবেষণায় বলা হয়, মহিলারা দিনে ৬ ঘণ্টা বসে কাটালে স্তন, জরায়ু ও হাড়ে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা ১০ শতাংশ বেড়ে যায়। ১৯৯২ সাল থেকে ২০০৯-এর মধ্যে ১ লাখ ৪৬ হাজার ব্যক্তির ওপর সমীক্ষা চালান গবেষকরা। তার মধ্যে পুরুষ ছিলেন ৬৯ হাজার ২৬০ জন ও মহিলা ৭৭ হাজার ৪৬২ জন। সমীক্ষায় দেখা যায়, যেসব মহিলা ক্যান্সার আক্রান্ত, তাদের মধ্যে বসে অবসর সময় কাটানোর প্রবণতা ছিল বেশি।

ইমরান খানের স্ত্রীর ডিগ্রী ভুয়া

পাকিস্তানী রাজনীতিক ও প্রাক্তন বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার ইমরান খান চলতি বছরের প্রথম দিকে ঘরে তুলেছেন ব্রিটিশ নারী সাংবাদিক রেহাম খানকে। এ নিয়ে বিতর্ক, সমালোচনা কম ছিল না। কারণ, এটি ইমরানের দ্বিতীয় বিয়ে। কিন্তু এবার এ বিতর্কের পালে হাওয়া লাগিয়েছে নবপরিণীতা স্ত্রীর ভুয়া ডিগ্রীর খবর।

ইংরেজী দৈনিক ডেইলি মেইল-এর অভিযোগ, রেহাম খান নর্থ লিন্ডসে কলেজ থেকে সম্প্রচার সাংবাদিকতার ডিগ্রী কোর্স করেছেন, তা মিথ্যা। কলেজটিতে এ ধরনের কোন কোর্সই নেই।

এ খবর প্রকাশের পর বিস্ময় প্রকাশ করলেও পরে জবাবদিহি করতে বাধ্য হন রেহাম খান। তিনি বলেন, ‘আমার সম্প্রচার সাংবাদিকতার ডিগ্রী আছে, এমনটা আমি কখনও দাবি করিনি। আমি গ্রিমসবি ইনস্টিটিউট মিডিয়া সেন্টার থেকে সম্প্রচার সাংবাদিকতায় ডিপ্লোমা করেছি।’ দৃঢ় চিত্তে এ দাবি করলেও, সঙ্গে সঙ্গে নিজের ওয়েবসাইট প্রোফাইল থেকে নর্থ লিন্ডসে কলেজ থেকে সম্প্রচার সাংবাদিকতায় ডিগ্রীর তথ্যটি মুছে ফেলেন তিনি।

সমাবর্তনে টুপি ছোড়া নিষেধ

স্নাতক শেষ হয়েছে? তা বেশ। তবে সমাবর্তনে গিয়ে আনন্দে টুপি ছোড়া চলবে না। কারণ স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার ঝুঁকি। চিরচেনা এ রীতির ওপর এমনই কারণ দেখিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়। এ নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছে শুধু প্রাচীন ইতিহাস ও পুরাতত্ত্ববিভাগের ছাত্রছাত্রীরা। ১৮৭ বছরের পুরনো বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন ঘটনা প্রথম। সাম্প্রতিক কিছু সমাবর্তন অনুষ্ঠানে টুপির আঘাতে অনেকে আহত হওয়ার ঘটনার পরই এ সিদ্ধান্ত বলে দাবি করেছে সমার্বতনে গাউন ও টুপির জোগান দেয়া কোম্পানি।

সমাবর্তনে টুপি ছোঁড়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা কোন নতুন ঘটনা নয়। ২০০৮ সালে কেমব্রিজের অ্যাঙ্গলিয়া রাস্কিন ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ টুপির ধার দিয়ে আঘাত এড়াতে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন।