১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যাত্রাবাড়ীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস ফুটপাথে, চালক নিহত

  • মুগদায় বাসায় ঢুকে এক ব্যক্তিকে গুলি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর রায়েরবাগে ওভারব্রিজের পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এক বাসচালক নিহত হয়েছেন। একই থানা এলাকায় সায়েদাবাদ টার্মিনালে বাসচাপায় এক কাউন্টারম্যান নিহত হয়েছেন। মুগদায় বাসায় ঢুকে দুর্বৃত্তরা এক ব্যক্তিকে গুলি চালিয়েছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর রায়েরবাগ এলাকায় একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক ছেড়ে ফুটপাথে উঠে ফুটওভার ব্রিজের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে মোঃ কামাল হোসেন (৫৫) নামে এক বাসচালকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত কামাল ঢাকা-নোয়াখালী রুটের ‘সোনালী পরিবহন’ বাসচালক ছিলেন। নিহতের ছেলে শিমুল আহম্মেদ জানান, তাদের গ্রামেরবাড়ি নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জে। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে বাবার সঙ্গে তিনি ওই বাসে করে ঢাকায় আসছিলেন। তার বাবাই বাসটি চালাচ্ছিলেন। গাড়িটি রায়েরবাগের ফুটওভার ব্রিজের নিচে আসার পর বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফুটপাথের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে কামাল হোসেন গুরুতর আহত হন। পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

একইদিন ভোরে যাত্রাবাড়ী থানাধীন সায়েদাবাদ টার্মিনালে বাসচাপায় সদর মোল্লা (৪৮) নামে এক কাউন্টারম্যানের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের সহকর্মী আনোয়ার হোসেন জানান, সিলেট রোডের আহম্মদ পরিবহনের কাউন্টারে তারা টিকেট বিক্রির কাজ করতেন। কাউন্টার থেকে বেরিয়ে সদর মোল্লা টার্মিনাল এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিলেন। এ সময় মেঘনা পরিবহনের একটি বাস সদর মোল্লাকে চাপা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই সেন্টু চন্দ্র দাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, লাশের ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাসায় ঢুকে গুলি ॥ বুধবার রাতে রাজধানীর দক্ষিণ মুগদায় বাসায় ঢুকে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে গুলি চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তিনি ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির একজন ফোরম্যান। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সেন্টু চন্দ্র দাস জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে জাহাঙ্গীরকে তার স্ত্রী মায়া বেগম ও ছেলে আবীর গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসেন। জাহাঙ্গীরের ডান বুকের নিচের দিকে একটি গুলির চিহ্ন রয়েছে। জাহাঙ্গীরের স্ত্রীর বরাত দিয়ে এএসআই সেন্টু জানান, রাত সাড়ে ৯টার দিকে জাহাঙ্গীরের নিজস্ব চার তলা বাড়ির তৃতীয় তলায় ১০-১২ যুবক ঢুকে জাহাঙ্গীরকে গুলি করে পালিয়ে যায়।

নিহতের স্ত্রী মায়া বেগম পুলিশকে জানান, ওই ভবনের নিচ তলায় শাহেনশা নামে এক যুবক ভাড়া থাকতেন। শাহেনশা মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকায় এক বছর আগে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন জাহাঙ্গীর।