১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুন্সীগঞ্জ-ঢাকা রুটে বাস ভাড়ার নামে চাঁদাবাজি

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জ-ঢাকা রুটে বাস ভাড়া দ্বিগুণ করা হয়েছে। ঈদ মোবারক লিখে টিকেট ছাপিয়ে ৫৫ টাকার স্থলে ১শ’ টাকা আদায় করা হচ্ছে। বৃস্পতিবার রাতে আকস্মিক এই ভাড়া বৃদ্ধির ঘটনায় যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। এ নিয়ে বাস শ্রমিকের সঙ্গে যাত্রীদের বচসা হচ্ছে। যাত্রীরা অভিযোগ করেছেনÑদীঘিরপার ট্রান্সপোর্ট লাইন রীতিমতো চাঁদাবাজিতে নেমেছে। কৌশলে বিআরটিসি বাস বন্ধ করে পরিবহনটি যাত্রীদের জিম্মি করে ফয়দা লুটছে। এ ব্যাপারে রাত সাড়ে দশটায় জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল হাসান বাদল জানান, প্রশাসন বিষয়টি অবগত ছিল না। পরিবহনটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। বাসযাত্রী রাজীব মজুমদার বলেন, মগের মল্লুকের মতো অবস্থা। মাত্র ২৫ কিলোমিটার দূরত্বের এই রুটের ভাড়া ৫৫ টাকা থাকলেও কোন সিদ্ধান্ত ছাড়াই ৬০ টাকা আদায় করা হচ্ছিল। প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তা কয়েকদিন বন্ধ হলেও আবারও ৬০ টাকা আদায় করা হয়। এর পর বৃহস্পতিবার এক লাফে ১শ’ টাকা! বাসযাত্রী ইন্স্যুরেন্স কর্মকর্তা আরমান জাহিদ বলেন, এর প্রতিবাদ করতেই বাস শ্রমিক এবং ভাড়াটে পা-ারা যাত্রীদের লাঞ্ছিত করছে। বাস মালিক সামসুদ্দিন হালদার বলেন, ঈদের সময় ঢাকা থেকে যাত্রী পেলেও দীঘিরপার বা মুন্সীগঞ্জ থেকে আসার সময় যাত্রী পাওয়া যায় না। তাছাড়া ঈদ উপলক্ষে আমাদের চাঁদা দিতে হয়। কাদেরকে চাঁদা দেন জানতে চাইলে বলেন, কাদেরকে দেই না তাই জিজ্ঞেস করেন। ৩২ টা ক্লাব আছে গুলিস্থানের আশপাশে। ওখানে ২হাজার থেকে ১০হাজার টাকা পর্যন্ত মোট প্রায় ২ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হয়। ট্রাফিকদেরও চাঁদা দিতে হয়। তাছাড়া, ড্রাইভার, কর্মচারীদের ঈদ বোনাস তো! দীঘিরপার ট্রান্সপোর্ট লাইনের পরিচালক বাবর হোসেন বলেন, শুধু আমরা নই, সব বাস কো¤পানিই বেশি ভাড়া আদায় করছে।

নির্বাচিত সংবাদ