১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঈদের ছুটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬২ জন নিহত

ঈদের ছুটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬২ জন নিহত
  • এক সিরাজগঞ্জেই ২৫ জনের মৃত্যু

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ঈদের ছুটিতে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬২ জন নিহত এবং দেড় শতাধিক আহত হয়েছেন। ঈদের পরদিন সিরাজগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫ জন নিহত ও ৭০ জন আহত হয়েছে। এছাড়া কুমিল্লায় ৬ জন, বগুড়া ও রংপুরে চারজন করে নিহত হয়েছে। ময়মনসিংহের ত্রিশালে নিহত হয়েছে তিনজন, নড়াইল, বরিশাল, পটুয়াখালী, যশোরে প্রতিটি জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন করে নিহত হয়েছে। এছাড়া মুন্সীগঞ্জ, কুড়িগ্রাম, বরগুনা, মাদারীপুর, ভালুকা, নীলফামারী, নোয়াখালী, নওগাঁ ও ঢাকার আশুলিয়ায় দুর্ঘটনায় একজন করে নিহত হয়েছেন। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

সিরাজগঞ্জ ॥ ঈদের পরের দিন রবিবার ভোরে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড়ের সয়দাবাদের মূলিবাড়ি এলাকায় যাত্রীবাহী দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে গাড়ির চালক, শিশু, নারীসহ ১৭ জন নিহত এবং কমপক্ষে ৪৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিক এবং বগুড়ার জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে ঈদের ছুটির তিন দিনে সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ সড়ক পৃথক দুর্ঘটনায় ২৫ জন নিহত ও অন্তত ৭০ জন যাত্রী আহত হয়েছে। এর মধ্যে শুক্রবার বিকেলে সেতুর পশ্চিমপাড়ের কাশেমমোড় এলাকায় বাস উল্টে খাদে পড়ে ৫ জন, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাসের চাপায় মোটরসাইকেলের একই পরিবারের ৩ জন নিহত হয়। এ সব ঘটনায় অন্তত ৭০ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়।

রবিবার ভোর ৫টায় বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় সংযোগ মহাসড়কের সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের মূলিবাড়ি এলাকায় দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ অন্তত ১৭ যাত্রী নিহত ও অর্ধশতাধিক যাত্রী আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ১৩ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন- আজাদ পরিবহনের চালক মিনহাজ প্রধান (৪০), গাইবান্ধার সবুজ (২৫), লিটন আহমদ (৩০), রংপুর জেলার বদরগঞ্জের তাহেরা বেগম (৩৫), দিনাজপুর জেলার পাবর্তীপুর উপজেলার মোনমতাপুর গ্রামের কার্র্তিক রায়ের ছেলে বাবু রায় (২৫), চিরিরবন্দর উপজেলার পুনাট গ্রামের আশিনাথ রায়ের ছেলে বিপ্লব রায় (১৮), রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার আজিজুল হকের ছেলে আনোয়ারুল ইসলাম (১৯), গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি উপজেলার বাদশা মিয়ার ছেলে মিলন মিয়া (২০), রংপুরের বাস হেলপার আজাদ রহমান (৩০), বগুড়ার শিবপুরের আব্দুস সালাম (৩৫), জিল্লুর রহমান (৪৫), রংপুরের মিঠা পুকুরের মৌসুমী (১৯) এবং পলাশ বাড়ির আমিনুল ইসলাম (৩০)।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিমপাড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন জানান, চট্টগ্রাম থেকে সাবিবর পরিবহন (ঢাকা মেট্রো ব-১১-৪০৩৪) নামের একটি বাস বগুড়া এবং বিপরীতমুখী সৈয়দপুর থেকে আজাদ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো জ-১৪-১০৮৬) ঢাকা যাচ্ছিল। বাস দুটি ঘটনাস্থলে পৌঁছলে বগুড়াগামী বাম লেনের গাড়ি ডান লেনে ঢুকে ঢাকাগামী ডান লেনের বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই উভয় বাসের চালকসহ ১১ জন নিহত হয়। এ ঘটনায় উভয় বাসের অর্ধশতাধিত মানুষ আহত হয়। সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেবার পর আরও ৩ জন মারা যান। পরে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৌসুমী, আমিনুল ও সালাম নামের ৩ জন মারা যান।

কুমিল্লা ॥ কুমিল্লায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পিতা-পুত্রসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন। ঈদের দিন শনিবার জেলার বুড়িচং, চান্দিনা ও লাকসামে পৃথক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার ঈদের দিন কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পার্শ্বস্থ বুড়িচং উপজেলার দেবপুর এলাকার শেওরিন টেক্সটাইলস মিল থেকে সকাল ৯টার দিকে ওই মিলের কর্মচারী আজহারুল ইসলাম (৪০) কাজ শেষে তার পুত্র নুর মোহাম্মদসহ (৮) বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় দেবপুর এলাকায় কুমিল্লা ট্রান্সপোর্ট নামের একটি দ্রুতগতির বাস তাদের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যান। এছাড়া একই দিন সকাল ৭টার দিকে জেলার চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর এলাকায় ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের দ্রুতগতিসম্পন্ন একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এ সময় ওই বাসের নিচে চাপা পড়ে হাসু বেগম (৫০) নামে এক নারী নিহত হন। নিহত হাসু বেগম চান্দিনা উপজেলার দোতলা গ্রামের বাসিন্দা। এ দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ১৫ জন বাসযাত্রী আহত হন। এদিকে জেলার লাকসাম উপজেলার চিলুনিয়া এলাকায় ওইদিন সকাল সাড়ে ৬টার দিকে নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে মাইক্রোবাসের ৫ যাত্রী গুরুতর আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ জন মারা যান বলে পুলিশ জানিয়েছে।

রংপুর ॥ ঈদের ছুটির তিন দিনে রংপুরে পৃথক চারটি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত এবং কমপক্ষে ৫৩ জন আহত হয়েছেন। আহতদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ির অধিকাংশ যাত্রীদের অভিযোগ চালকদের অসাবধনতা এবং গাফিলতির কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার বৈরাগীগঞ্জ এলাকায়। ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নীলফামারীগামী একটি নৈশকোচ রংপুরের কাছাকাছি আসার সময় মিঠাপুকুরে গাড়ির চালক গাড়িটির চালনা তুলে দেন হেলপারের কাছে। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই হেলপার নিয়ন্ত্রণ হারালে গাড়িটি খাদে পড়ে যায়। এতে ১ জন নিহত এবং কমপক্ষে ৩০ আহত হন। একই দিন বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রামের উলিপুরগামী একটি বাস বেলা ১১টায় রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায় একটি অটো রিক্সাকে চাপা দিয়ে পালাবার চেষ্টা করে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে আহত হন কমপক্ষে ২০ যাত্রী। একইদিন রাতে জেলার পীরগঞ্জে ওভারটেক করতে গিয়ে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ২ জন এবং আহত হন ৩ জন। এছাড়া ঈদের দিন পাগলাপীরের গঞ্জিপুরে ভটভটি ও বাসের সংঘর্ষে নিহত হন ১ জন।

বগুড়া ॥ বগুড়ায় ঈদের দিনে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই স্কুলছাত্রসহ ৪ জন নিহত এবং ১০ জন আহত হয়েছে। নিহতরা হলেন- আবু হোরাইরা রিটন (১৩), শান্ত (১৫), সাইফুল ইসলাম (৩৮) ও মর্জিনা বেগম (৪০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ঈদের দিন শনিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের নিশিন্দারা এলাকায় স্কুলছাত্র রিটন ও শান্তসহ কয়েক বন্ধু ৩ মোটরসাইকেল নিয়ে বেড়ানোর উদ্দেশে পাহারপুর যাচ্ছিল। পথে তারা মোটরসাইকেল থেকে যাত্রাপথের ছবিও তুলছিল। এ সময় বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে বগুড়া সদরের গোকুল এলাকায় একটি মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারায় এবং বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা খায়। দুর্ঘটনাকবলিত মোটরসাইকেলে থাকা ৩ জনের মধ্যে স্কুলছাত্র রিটন ও শান্তকে বগুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। অপর জন একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বরিশাল ॥ জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধলমৌ গ্রামে রবিবার রাতে মোটরসাইকেলের চাপায় রেদোয়ান সিকদার (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। সে ওই গ্রামের হাফেজ সিকদারের পুত্র। অপরদিকে উজিরপুর উপজেলার নারায়ণপুরের গাবতলা নামকস্থানে শুক্রবার সকালে দুটি যাত্রীবাহী মাহিন্দ্রা টেম্পোর মুখোমুখি সংঘর্ষে নুরুন্নাহার বেগম (৩০) নামের এক নারী যাত্রী নিহত ও ছয়জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। নিহত নুরুন্নাহার উজিরপুরের লস্করপুর গ্রামের সোলায়মান মিয়ার স্ত্রী।

ভালুকা ॥ শুক্রবার দুপুর ১টার সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বাগরাপাড়া উর্মী সিএনসি স্টেশনের সামনে বাসের ধাক্কায় আরেক বাসের হেলপার নিহত হয়।

ঘটনার সময় বিআরটিসির একটি বাস মহাসড়কের পাশে দাঁড় করিয়ে মেরামত করার সময় ময়মনসিংহগামী অপর একটি বাস পিছন থেকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই বিআরটিসির বাসের হেলপার নেত্রকোনা জেলার খাইরুল ইসলাম (৩৫) নিহত হয়।

নীলফামারী ॥ ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে গিয়ে বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালিয়ে তিস্তা ব্যারাজ যাওয়ার পথে মশিউর রহমান (২৩) নামের এক চালক প্রাণ হারিয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের অপর এক আরোহীসহ অটোরিক্সার দুই যাত্রী। ঈদের দিন শনিবার বিকেলে নীলফামারীর জলঢাকা-ডালিয়া সড়কের শিমুলতলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত মশিউর রহমান রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া উপজেলার বড়বিল গ্রামের মোশাররফ হোসেনের ছেলে। তিন আহতদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের লৌহজং উপজেলার দোগাছিতে বাস ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে সিএনজি চালক নিহত হন। তার পরিচয় এখনও জানা যায়নি। এসব তথ্য দিয়ে লৌহজং থানার ওসি রিয়াজুল হক জানান, মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক আছে। বাস ও সিএনজিটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। তবে বাস চালক পালিয়ে গেছে।

পটুয়াখালী ॥ ঈদের নামাজ আদায় করা হলো না পরিবারের সঙ্গে শিক্ষাক নজরুল ইসলামের (৪৮)। সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন তিনি। দুর্ঘটনায় আরও পাঁচ যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। গত শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পটুয়াখালী-বরিশাল মহাসড়কের গাবুয়া বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে।

ঈদের দিন বিকেলে পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের কাশিপুর বাঁধ এলাকায় দুইটি টমটমের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে আজিজুর রহমান ওরফে কালু (৫৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ওই সময় পটুয়াখালী সদর ইউনিয়নের কমলাপুর নিজ বাড়ি থেকে (মৃধা বাড়ি) পার্শ্ববর্তী বাউফল উপজেলার বগা ইউনিয়নে সাবপুরা শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন। রবিবার বিকেলে বাউফল সদর ইউনিয়নের বিলাবিলাস বাজার এলাকায় টমটম উল্টে খাদে পড়ে মোঃ শাহজাহান (৫০) নামের অপর এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। ওই সময় ছিয়ানুর (২০), তালহা (৩৫) ও নাজমাসহ (২৫) কমপক্ষে আটজন আহত হয়েছেন। নিহত শাহজাহানের বাড়ি দশমিনা উপজেলার বাশবাড়িয়া গ্রামে।

কুড়িগ্রাম ॥ সড়ক দুর্ঘটনায় কুড়িগ্রাম আলীয়া মাদ্রাসার প্রভাষক মিনহাজুল ইসলামের (৩৫) মৃত্যু হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। পরে রাতে কুড়িগ্রাম শহরের সরদার পাড়ায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রভাষক মিনহাজুল ইসলাম ঘোগাদহ ইউনিয়নের চৈতের খামার জামে মসজিদের ঈদগা মাঠে শনিবার ঈদের নামাজ পড়ান। পরে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে দুর্ঘটনা কবলিত হন। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার সন্ধ্যায় তার মৃত্যু হয়।

সাভার ॥ সোমবার নবীনগর-কালিয়াকৈর মহাসড়কের আশুলিয়া থানাধীন পল্লীবিদ্যুত বাসস্ট্যান্ডে দ্রুতগামী বাস চাপায় এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন।

নিহতের নাম জয়নাল আবেদীন (৭৫)। তিনি শেরপুর জেলার পাকুরিয়া গ্রামের মৃত মোঃ সাইদুল্লাহর ছেলে।

নোয়াখালী ॥ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় মালবাহী একটি মাইক্রোবাস চাপায় মাহবুবুর রহমান বাবলু (২৮) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী মারা গেছেন। সোমবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ফেনী-বসুরহাট সড়কের মহাজন দীঘি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মোঃ মাহবুবুর রহমান বাবলু উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের কাকোর ব্যাপারী বাড়ির আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে।

নওগাঁ ॥ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিলয় (১৬) নামে ১০ম শ্রেণীর এক মেধাবী ছাত্র নিহত হয়েছে। নিহত নিলয় শহরের কাজীর মোড় এলাকার মুজাহিদ হোসেনের পুত্র ও নওগাঁ সরকারী কেডি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র।

নড়াইল ॥ নড়াইলের কলাবাড়িয়া ইউনিয়নের মূলখানা নামক স্থানে ইজিবাইক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার খাদে পড়ে এক নারী ও এক শিশু নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন কলাবাড়িয়া গ্রামের শরীফ আব্দুল কাইয়ুমের স্ত্রী শাহিদা বেগম (৪২) ও আব্দুল কাইয়ুমের ভাতিজি আনিকা (৬)। শনিবার বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মাদারীপুর ॥ শিবচরে যাত্রীবাহী একটি লোকাল বাস খাদে পড়ে ১ জন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার ভদ্রাসন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বরগুনা ॥ শনিবার সকালে আমতলী-কলাপাড়া সড়কের বান্দ্রা পয়েন্টে পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে চালক সাইকেল চালক শাকিল (১৫) ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছেন। আরোহী শাওন (১৩) ও মিঠু (৮) গুরুতর আহত হয়েছে।

যশোর ॥ তিনদিনে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক মাদ্রাসা শিক্ষকসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুলসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়ে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

ফটিকছড়ি ॥ চট্টগ্রামের নাজিরহাট-ফটিকছড়ি সড়কের কোম্ভারপাড়া এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ঈদের দিন শনিবার বিকেল ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ত্রিশাল ॥ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল উপজেলার রাগামারা নামকস্থানে সোমবার বিকেলে প্রাইভেটকার ও বাসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে এক চিকিৎসকসহ মারা গেছে ৩ জন। এ সময় আহত হয়েছে প্রাইভেটকারের চালকসহ আরও ২ জন। তাদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।