২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সংঘর্ষে নিহত চার

  • আহত তিন শ’

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ হবিগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষে দুইজন নিহত ও এক শ’ ৫০ জন আহত হয়েছে। এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, নড়াইল, কলাপাড়া ও আমতলীতে সংঘর্ষে ৮১ জন আহত, শেরপুরে বৃদ্ধ নিহত, নেত্রকোনায় ৫৫ জন আহত, বাগেরহাটে একজন নিহত ও ৪ জন আহত হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

হবিগঞ্জ ॥ খেজুর কেনা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের জের ধরে রবিবার জেলার লাখাই উপজেলাধীন সিংহগ্রাম ও তেঘরিয়া গ্রামবাসীর মধ্যে সকাল থেকে দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ এবং পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় সিংহগ্রামের বকুল মিয়া (৩৫) ও একই গ্রামের কদম আলী (৬০) নিহত এবং আহত হয়েছে দেড় শতাধিক। এদিকে একই সংঘর্ষে গুরুতর আহত অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানায়, সংঘর্ষের আগে শুক্রবার বিকেলে ওই ফল কেনা নিয়ে তেঘরিয়া গ্রামের জনৈক মলাই মিয়ার সঙ্গে সিংহগ্রামের জনৈক আফজাল মিয়ার বাকবিত-া ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সালিশ নিষ্পত্তির উদ্যোগ চললেও রবিবার সকাল ১০টার দিকে উভয় গ্রামের পক্ষাবলম্বনকারী সশস্ত্র লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এদিকে এ সংর্ঘষের খবর পেয়ে লাখাই থানা ও হবিগঞ্জ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রথমে লাঠিচার্জ এবং পরবর্তীতে ৩ রাউন্ড টিয়ারশেল ও ৪১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছোড়ে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মরদানা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সোমবার সকালে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। শিবগঞ্জ পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালামের সঙ্গে সাবেক কাউন্সিলর পাশবানের বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে সোমবার সকাল ৭টার দিকে উভয়পক্ষ দেশী অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয়পক্ষ শতাধিক বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় ১০-১২টি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। এতে উভয়পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছে।

গোপালগঞ্জ ॥ মুকসুদপুর উপজেলার দাসেরহাট এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত থেমে থেমে চলা এ সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১০ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উভয়পক্ষের তিনজনকে আটক করেছে। গুরুতর আহতদের ৭ জনকে মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নড়াইল ॥ এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে লোহাগড়া উপজেলার হলদা গ্রামে ঈদ জামাতের পর দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। জানা গেছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হলদা গ্রামের মোল্যা ও শেখ বংশের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এর জের ধরে শনিবার ঈদের নামাজ শেষে সাইফুল মোল্যার লোকজন প্রতিপক্ষের চড়াও হয়। এ সময় হাবিব শেখের লোকজন উত্তেজিত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের ৩০ জন আহত হন।

কলাপাড়া ॥ ঈদের জামাত শেষে ঈদগাহ মাঠে দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘাতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে রুবেল পাহলোয়ানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া নাদিম, রেজাউল, ইমরান, বদরুল, মতিউর রহমান, ইসমাইল তালুকদার, ফেরদৌস, আব্দুল রব ফকিরসহ উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হয়। তাদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। শনিবার সকাল নয়টার দিকে তেগাছিয়া বাজার ঈদগাহ মাঠে প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী কয়েক দফা এ সংঘাত হয়েছে। গরুর ঘাস খাওয়ার মতো তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় পাহলোয়ান গ্রুপের সঙ্গে আকন গ্রুপের এ সংঘাত হয়।

আমতলী ॥ শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে বরগুনার আমতলী উপজেলার চাওড়া চন্দ্রা গ্রামে আফজাল হোসেন ও ফারুক হাওলাদারের বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ৬ জন আহত হয়েছে।

শেরপুর ॥ জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হাউস আলী ওরফে সদাই (৫৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে। সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার চরমোচারিয়া ইউনিয়নের চরভাবনা গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে। জানা যায়, চরভাবনা গ্রামের হাউস আলীর সঙ্গে গোলাপ ও মোহাম্মদ আলীর দীর্ঘদিন যাবত জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে বেলা ১২টায় ওই বিরোধপূর্ণ জমি মীমাংসার কথা থাকলেও গোলাপ আলীর লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জমি দখল করতে যায়। ওইসময় বৃদ্ধ হাউস আলী ও তার লোকজন বাধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

নেত্রকোনা ॥ জেলার কেন্দুয়া উপজেলায় পৃথক দুটি সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ৫৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে দু’জন পুলিশ কনস্টেবল রয়েছেন। জানা গেছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রবিবার বিকেলে কান্দিউড়া ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামে আজিজুল হক ভূঁইয়া ও আসলামুল হক ভূঁইয়ার নেতৃত্বে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৪০ জন আহত হয়। একই দিন বিকেলে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে কেন্দুয়ায় ১৫ জন আহত হয়েছে।

বাগেরহাট ॥ আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বাগেরহাটের চিতলমারীতে পুলিশ ও দু’গ্রুপের ত্রিমুখী সংঘর্ষে লিটন শেখ (২৭) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় স্থানীয় বড়বাড়িয়া পুলিশ ফাঁিড়র ইনচার্জসহ ৬ জন আহত হন।

সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে চিতলমারী উপজেলার চর চিংগুড়িয়া এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশ জানায়, সংঘর্ষে আহত ৭ জনকে উদ্ধার করে চিতলমারী, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।