১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্রামীণফোনে নতুন প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা নিয়োগ

গ্রামীণফোন বোর্ড শরিফুল ইসলামকে কোম্পানির নতুন প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা (সিএইচআরও) হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে। তিনি আগামী ১ আগস্ট ২০১৫ থেকে বিদায়ী সিএইচআরও কাজী মোহাম্মদ শাহেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন। বর্তমানে টেলিনরের সদর দফতর নরওয়েতে ভাইস-প্রেসিডেন্ট, এইচআর গবর্নেন্স, গ্রুপ পিপল ডেভেলপমেন্ট হিসেবে কর্মরত শরিফুল ইসলাম আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে গ্রামীণফোনে যোগ দেবেন। তবে বিদায়ী সিএইচআরও আগামী ১ আগস্ট থেকে টেলিনরের ভারতীয় মোবাইল অপারেটর ইউনিনরে সিএইচআরও হিসেবে যোগ দেবেন। বাংলাদেশের নাগরিক মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম ১১ বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন যার মধ্যে ৯ বছর তিনি গ্রামীণফোনের মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করেছেন। এছাড়াও তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক হিসেবে কাজ করেছেন এবং তার একটি স্থানীয় এবং একটি আন্তর্জাতিক প্রকাশনা আছে। এছাড়াও তিনি খাদ্য ও পানীয়, প্রশাসন এবং বাজার গবেষণা খাতেও কাজ করেছেন।-বিজ্ঞপ্তি।

ইউসিবির ডিএমডি জব্বার চৌধুরী

বিশিষ্ট ব্যাংকার মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার চৌধুরী সম্প্রতি ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে যোগদান করেছেন। ব্যাংকে যোগদানের আগে তিনি শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি ১৯৮০ সালে জনতা ব্যাংকে যোগদানের মাধ্যমে তার পেশাগত জীবনের সূচনা করেন। তিনি সেখানে শাখা ব্যবস্থাপক, কর্পোরেট শাখা প্রধান, অঞ্চল প্রধানসহ ব্যাংকের বিভিন্ন ব্যবস্থাপনা পর্যায়ে সুনাম ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ব্যাংকিংয়ের বিভিন্ন ক্ষেত্র যেমন জেনারেল ব্যাংকিং, ফরেন এক্সচেঞ্জ, ক্রেডিট, জেনারেল সার্ভিস, পাবলিক রিলেশন, এ্যাকাউন্টস, ফিন্যান্স, রিকভারিসহ নানা অঙ্গনে অভিজ্ঞতালব্ধ।-বিজ্ঞপ্তি।

লভ্যাংশ পাঠিয়েছে খুলনা পাওয়ার কোম্পানি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গত ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত অর্থবছরে জন্য বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে ঘোষিত লভ্যাংশ পাঠিয়েছে খুলনা পাওয়ার। এই সময়ে ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ প্রদান করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুত ও জ্বালানি খাতের এই কোম্পানি। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা যায়, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরের জন্য খুলনা পাওয়ারের লভ্যাংশ বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। যা ১২ জুলাই শেয়ারহোল্ডারদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে জমা হয়েছে। এর মধ্যে যাদের ব্যাংক হিসাবে লভ্যাংশ জমা করা যায়নি তাদের ঠিকানায় ১৪ জুলাই কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।