১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সৌদি বাদশাহর নির্দেশে ফ্রান্সে ভিলা ঘেঁষা সৈকতের প্রবেশপথ বন্ধ

  • ওলাঁদের হস্তক্ষেপ কামনা ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দাদের

সৌদি আরবের বাদশাহ ফ্রান্সের ভূমধ্যসাগরীয় সৈকতে (রিভিয়েরা) তাঁর বিলাসবহুল ভিলা সন্নিহিত একটি সর্বসাধারণের সৈকতে প্রবেশাধিকার বন্ধ করে দেয়ায় ক্ষুব্ধ ফরাসী স্নানকারীরা ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদের হস্তক্ষেপের আহ্বান জানিয়েছেন। ফরাসী কর্তৃপক্ষ বেলাভূমিতে সৌদি রাজপরিবারের সদস্যদের সহজ প্রবেশের সুবিধার জন্য একটি লিফট বসানোর পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে। সম্প্রতি সৌকতে একটি বিশাল কংক্রিটপি- বসানো হয়েছে।

সৌদি বাদশাহ্্র আসন্ন সর্ফকালে এমনকি জেলে ও সাঁতারুদেরও ওই এলাকায় প্রবেশের অনুমতি দেয়া হবে না। ভিলার ৩শ’ গজের মধ্যে কেউ সাঁতার কেটে প্রবেশ করলে উপকূলরক্ষীদের ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। খবর টেলিগ্রাফের।

ফরাসী আইনের আওতায় ছবিসম মিরানদোল সৈকত আন্টিবিজ ও কান-এর মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত এবং এটি সকলের উপভোগের জন্য উন্মুক্ত থাকার কথা। কিন্তু বাদশাহ সালমান তাঁর সফরের প্রাক্কালে তারের বেষ্টনী দিয়ে সৈকতের একমাত্র প্রবেশপথটি বন্ধ করে দেয়ার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। এখন আশপাশের এলাকায় বসবাসকারীরা রাজকীয় ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতিবাদ করে একটি স্বাক্ষরিত আবেদনে দাবি করেছে, সৈকত বন্ধ করে দেয়া ফ্রান্সের ‘বহুমূল্য গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের অবমাননা। ওলাঁদ ও অন্য সিনিয়র সমাজবাদী রাজনীতিবিদদের উদ্দেশ্যে পাঠানো এক চিঠিতে ওই গোষ্ঠী ফরাসী সরকারকে সৈকতটি আবার খুলে দিতে বলেছে। সৈকতের একটি অংশ স্থানীয় নগ্নতাবাদীদের (ন্যুডিস্ট) জন্য সংরক্ষিত। আবেদনে বলা হয়, ‘আমরা স্মরণ করছি যে, এই প্রাকৃতিক এলাকা, সেইসঙ্গে সকল সর্বসাধারণের উপকূলীয় এলাকা একটি অবিচ্ছেদ্য জনকল্যাণমূলক স্থান, যেখান থেকে প্রতেকেরই উপকৃত হওয়ার অধিকার আছেÑ অধিবাসী, পর্যটক, ফরাসী নাগরিক, বিদেশী পর্যটক নির্বিশেষে সকলের।’

‘আমরা আশা করি আমাদের দেশের নেতৃবৃন্দ এ ব্যাপারে সমস্বরে যে ক্ষোভ প্রকাশ পেয়েছে তা শুনবেন ও স্বীকার করবেন। এটি একটি গুরুতর বিষয় যা আমাদের সবচেয়ে মূল্যবান গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ দমনের একটি প্রতীক হিসেবে অনুরণিত হচ্ছে।’

ইতোমধ্যে আবেদনটিেেত তিন হাজার লোক স্বাক্ষর করেছে এবং সংগঠকদের আশা স্বাক্ষরদাতাদের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়ে গেলে এটি ওলাঁদের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে। শ্রমিকরা ইতোমধ্যে বাদশাহ সালমানকে তাঁর সম্পত্তিতে যাওয়ার আনন্দ উপভোগ করতে দিতে সৈকতে একটি বিরাট কংক্রিট সø্যাব বসানোর কাজ করছে। প্রায় কূড়ি বছর আগে বাদশাহ নির্বিঘেœ এটি ক্রয় করেন।

মোহাম্মদ নামের একজন স্থানীয় জেলে বলেন, ‘তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং আমাদের কিছু বলার নেই। এটি মাছ শিকারের একটি ভাল জায়গা এবং সেখানে ঢুকতে না দেয়া মেনে নেয়া যায় না।’ স্থানীয় নার্স ফাতেমাও সাধারণের জন্য স্থানটিতে প্রবেশ বন্ধ করে দেয়ায় তাঁর হতাশা ব্যক্ত করেন। তিনি হোন বা অন্য কোন ধনকুবেরই হোন, তাদের সর্বদাই সাধারণ মানুষ বাদ দিয়ে অগ্রাধিকার দেয়া হয়।’