২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপি ভাঙতে খালেদার ছেলেই যথেষ্ট ॥ সুরঞ্জিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি ভাঙ্গার জন্য সরকারের প্রয়োজন হবে না, খালেদা জিয়ার এক ছেলেই যথেষ্ট বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার ভয়, তাঁর দল বুঝি সরকার ভেঙ্গে দেবে। সব সরকারই বিরোধী দল ভাঙ্গার চেষ্টা করে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে খালেদা জিয়া আওয়ামী লীগকে ভাঙ্গার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ইতিহাস বলে, সেটা সম্ভব হয় না। দল ভাঙ্গে ভেতরের লোকজন। বিএনপি ভাঙ্গার জন্য খালেদা জিয়ার এক ছেলেই যথেষ্ট, ঘরের শত্রু বিভীষণ। মঙ্গলবার রাজধানীতে চলমান রাজনীতি নিয়ে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে দলের ভেতরের শত্রুদের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, যা শোনা যাচ্ছে তাতে জিয়ার বিএনপি, মাহবুবুর রহমানের বিএনপি ইত্যাদি নামে বিএনপি বিভক্ত হয়ে যেতে পারে। আর কর্নেল অলি কিংবা বদরুদ্দোজ্জা চৌধুরীর শূন্য দল এনে কোন লাভ নেই। কারণ পচা জিনিস কেউ গ্রহণ করে না।

ভবিষ্যতে সরকারবিরোধী আন্দোলনে সহিংসতা নিয়ে বিএনপি জোটকে সতর্ক করে দিয়ে প্রবীণ এই পার্লামেন্টারিয়ান বলেন, খালেদা জিয়া এবার শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করবেন বলে শোনাচ্ছেন। বিলম্ব হলেও আন্দোলন শান্তিপূর্ণ হবে এমন বোধোদয়ের জন্য আমি খালেদা জিয়াকে ধন্যবাদ জানাই। কিন্তু এর পরেও খালেদা জিয়াকে বলতে হয়, আপনি ঠিক করুন, পেট্রোলবোমা ও ককটেলের রাজনীতি করবেন, নাকি গণতান্ত্রিক আন্দোলন করবেন?

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে গ্লোবাল পলিটিক্সের (বিশ্ব রাজনীতি) দিকে তাকিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। বিশ্ব রাজনীতির অবস্থা বুঝে দেশের রাজনীতির সিদ্ধান্ত নিতে হবে। যেভাবে চলছে ওভাবে হবে না। মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ ও রদবদল নিয়ে কয়েকজন প্রবীণ সতীর্থের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, মন্ত্রিসভায় নতুন করে কেউ নিয়োগ হবে না বলে কিছু রাজনীতিক মন্তব্য করছেন। এটা অনর্থক কথাবার্তা। এ বিষয়ে অন্য কারো কথা বলা বোকামি। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি নিজের আস্থার কথা জানিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, শেখ হাসিনা একটা অখণ্ড সত্তা। তিনি কখন কাজে তুলবেন, কাকে নামাবেন সেটা তিনিই ভাল জানেন।

আওয়ামী লীগ নেতা চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু একাডেমির সংগঠক হুমায়ুন কবির মিজি, নারায়ণ চন্দ্র দেবনাথ, এম এ মোতালেব, সাম্যবাদী দলের হারুন চৌধুরী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।