১৯ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে সূচক বেড়েছে প্রায় ২ শতাংশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দীর্ঘ ছুটির পরে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে মঙ্গলবার সূচকের উর্ধমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের পরে শেয়ার বিক্রির চাপ কমে যাওয়া এবং আগামীতে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর আর্থিক প্রতিবেদনে ইতিবাচক প্রবণতা থাকবে এমন আশায় বুক বাঁধছেন বিনিয়োগকারীরা। যার কারণে লেনদেন শুরুর প্রথম দিনেই প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জের (ডিএসই) সব ধরনের সূচক বেড়েছে প্রায় দুই শতাংশ। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় সেখানে লেনদেনও বেড়েছে। দিনটিতে ডিএসইতে মোট ৪৯২ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২২৮টির, কমেছেও ৬১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির শেয়ার দর।

সকালে ইতিবাচক শুরুর পরে প্রধান পুঁজিবাজারে সূচক ক্রমাগত বাড়ছিল। তবে সেই অনুযায়ী বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ কম ছিল। দিনশেষে সেখানকার প্রধান মূল্যসূচক বা ডিএসইক্স ৭৫ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৭৩১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১৬৪ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৩৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৫৮ পয়েন্টে।

ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনের স্থান দখল করেছে ওষুধ এবং রসায়ন খাতের কোম্পানিগুলো। সারাদিনে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৯৪ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৯ দশমিক ২৩ ভাগ। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল প্রকৌশল খাতটি। খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৮৪ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৭ ভাগ। শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানির স্পট থেকে মুক্তির দিনে জ্বালানি এবং শক্তি খাতের মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৮০ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৬ দশমিক ২৩ ভাগ।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, গ্রামীণফোন, এসিআই লিমিটেড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, আরএকে সিরামিকস বাংলাদেশ লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ইফাদ অটোস, বেক্সিমকো ফার্মা এবং ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়র্ড।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বিএসআরএম লিমিটেড, ইসলামী ব্যাংক, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স, রিপাবলিক, বঙ্গজ, বিজিআইসি, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, এক্সিম ব্যাংক ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, নর্দার্ন ইন্স্যুরেন্স।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : পদ্মা লাইফ, হাক্কানী পাল্প, বিডি ওয়েল্ডিং, এমবিএল ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, মডার্ন ডাইং, ন্যাশনাল টি, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স ও বিজিআইসি।

মঙ্গলবারে ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও সূচকের বড় ধরনের উর্ধগতি দেখা গেছে। একই সঙ্গে লেনদেনও আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। দিনশেষে সিএসইতে ৪৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসইর সার্বিক সূচক ২৫৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৫৬৬ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫১টির, কমেছে ৬০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, গ্রামীণফোন, বিএসআরএম লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, স্কয়ার ফার্মা, বেক্সিমকো, ইউনাইটেড এয়ার ও বেক্সিমকো ফার্মা।