২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভালুকায় কয়েক শ’ পরিবার পানিবন্দী

  • কালভার্ট বন্ধ করে স্থাপনা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভালুকা, ময়মনসিংহ ২১ জুলাই ॥ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ি সিডস্টোর বাজারে পানি নিষ্কাশণের একমাত্র কালভার্টটি বন্ধ করে দেয়ায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীসহ কয়েকশ’ পরিবার পানিবন্দী হয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। প্রতিকার চেয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে এলাকাবাসী। সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার হবিরবাড়ি সিডস্টোর বাজারের পূর্বপাশে প্রায় সহস্রাধিক বাসা-বাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে পাঁচ শতাধিক বাসা-বাড়ি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক থেকে কিছুটা নিচু এলাকায়। পানি নিষ্কাশনের জন্য সড়ক ও জনপথের উদ্যোগে মহাসড়কে কালভার্ট স্থাপন করা হয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী আব্দুল কাদের ও হাবি মিয়া উক্ত কালভার্টের উভয় মুখ বন্ধ করে দিয়ে স্থাপনা নির্মাণ করে। এতে ওই মহল্লার প্রায় পাঁচ শতাধিক বাসা-বাড়ি জলাবদ্ধতার শিকার হয়ে চরম দুর্ভোগের সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়া আসা বন্ধ হয়ে গেছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ সড়ক ও জনপথ বিভাগের কালভার্ট দিয়ে এলাকার পানি পাশের লাউতি খালে গিয়ে পড়ত। কিন্তু পূর্বপাশে আব্দুল কাদির ওরফে টিন কাদির এবং পশ্চিম পাশে হাবিবুর রহমান হাবি ও হায়দর আলী উক্ত কালভার্টটির মুখ বন্ধ করে দেয়ায় স্থায়ী জলাবদ্ধাতার সৃষ্টি হয়েছে। কালভার্ট বন্ধ করে স্থাপনা নির্মাণকারী অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান ওরফে হাবি জানান, পূর্বপাশে আব্দুল কাদির নামে এক ব্যক্তি প্রথম কালভার্টের মুখ বন্ধ করে। পরে ময়লা আবর্জনায় আমাদের মার্কেটের সামনে কালভার্টের মুখটিও বন্ধ হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা জানান, সিডস্টোর বাজার এলাকায় জলাবদ্ধাতার বিষয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়েজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের ময়মনসিংহ (দক্ষিণ) অঞ্চলের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মামুন হোসেন জানান, জলাবদ্ধতা না হওয়ার জন্যই কালভার্টটি নির্মাণ করা হয়েছিল। যদি কেউ তা বন্ধ করে দিয়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে থাকে তবে তা ঠিক হয়নি।

কিশোরগঞ্জে সৈয়দ আশরাফ মন্ত্রী হওয়ায় আনন্দ মিছিল

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ২১ জুলাই ॥ বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছেলে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়ায় তাঁর নির্বাচনী এলাকা কিশোরগঞ্জ শহরে মঙ্গলবার দুপুরে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয় থেকে কমান্ডার আসাদ উল্লাহ’র নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাদের আনন্দ মিছিল গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনামনস্ক সৈয়দ আশরাফকে গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি একে-অপরকে মিষ্টি খাইয়ে আনন্দ প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, গত ৯ জুলাই আকস্মিকভাবে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে দফতরবিহীনমন্ত্রী করেন। এ নিয়ে নানা গুঞ্জনের মধ্যে আশরাফ লন্ডন যাওয়ার প্রস্তুতিকালে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে ডেকে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব অর্পণ করেন।