১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আগস্টেই গ্যাস সংযোগ চায় এফবিসিসিআই

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শিল্পায়ন বাড়াতে ডিমান্ড নোটের বিপরীতে চলতি বছরের আগস্টের মধ্যে গ্যাস সংযোগ দেয়াসহ তিনটি প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি (এফবিসিসিআই)। বুধবার রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এফবিসিসিআই সভাপতি মাতলুব আহমাদ এসব প্রস্তাব তুলে ধরেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ, কাজী আকরাম উদ্দিন, বর্তমান সহ-সভাপতি মাহবুবুল আলম, ইন্টারন্যাশনাল চেম্বারেরর সভাপতি মাহবুবুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে মাতলুব বলেন, শিল্পায়নের স্বার্থে বিনিয়োগ উৎসাহ ও চলমান উৎপাদন প্রক্রিয়াকে অব্যাহত রাখতে নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহের কোনো বিকল্প নেই। এ জন্য তিনটি প্রস্তাব সরকারকে বিশেষ বিবেচনায় নেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রস্তাবগুলো হল- যে সকল ইন্ডাস্ট্রির অনুকূলে ডিমান্ড নোট জারী করা হয়েছে সে সকল ইন্ডাস্ট্রিতে আগামী আগস্ট মাসের মধ্যে গ্যাস সংযোগ প্রদান করা, স্থানান্তরিত কারখানায় পূর্বের অনুমোদন অনুযায়ী সরাসরি বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ প্রদান, গ্যাস চালিত জেনারেটরের মাধ্যমে নিজস্বভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে পরিচালিত কারখানায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার আগ পর্যন্ত নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ প্রদান করা।

শিল্পায়ন বাড়াতে গ্যাস সংযোগ পরে প্রশ্নের জবাবে মাতলুব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানী উপদেষ্টার সাথে সাম্প্রতিক বৈঠকে আমরা জানিয়েছি যে, যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে বিনিয়োগ করেছে তাদের আগে সংযোগ দেয়া হোক। কিন্তু নতুন ভাবে গ্যাস ভিত্তিক শিল্প স্থাপন করতে আমরা কাউকে উৎসাহিত করবো না। একইসাথে ভবিষ্যতে আমরা বিদ্যুৎ নির্ভর শিল্প কারখানা স্থাপন করতে সরকারের সহযোগিতা চাই।

তিনি জানান, সরকার চাইলে বন্ধ হয়ে যাওয়া বিদ্যুৎ কেন্দ্র পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিতে চালু করতে বিনিয়োগে ব্যবসায়িরা রাজি আছেন।

আরেক প্রশ্নের জবাবে এ কে আজাদ জানান, ৭০ থেকে ৮০টি প্রতিষ্ঠানকে ডিমান্ড নোট ইস্যু করা হলেও মাত্র ৮ থেকে ১০ টি কারখানা গ্যাস সংযোগ পেয়েছে। বাকিগুলো এখনও পায়নি।