১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেরেনা ভক্তদের দুঃসংবাদ

সেরেনা ভক্তদের দুঃসংবাদ
  • ওয়ার্ল্ড টিম টেনিস থেকেও ছিটকে গেলেন শীর্ষ তারকা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সেরেনা উইলিয়ামসকে নিয়ে নতুন কিছুই বলার নেই। তেত্রিশ বছর বয়সেও টেনিস কোর্টে তিনি যেন ষোলো বছরের তরুণী। সম্প্রতি ‘সেরেনা সøাম’ জিতে বয়সকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে আমেরিকান টেনিস তারকা প্রমাণ করলেন এই মুহূর্তে কোর্টে রাজা তিনিই। কিন্তু প্রতিপক্ষরা যখন সেরেনাকে থামাতে বার বার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছেন। তখনই তার প্রতিপক্ষ হিসেবে সামনে দাঁড়াল চোট। এই ইনজুরির কারণেই সম্প্রতি সুইডিশ ওপেন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এবার বাদ পড়ে গেলেন বিশ্ব টিম টেনিস থেকেও। তবে আগামী মাস থেকেই শুরু হতে যাওয়া ইউএস ওপেনের আগেই কোর্টে ফিরতে দারুণ আত্মবিশ্বাসী সেরেনা উইলিয়ামস।

কনুইর ইনজুরির কারণে সুইডিশ ওপেন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সেরেনা। পুরোপুরি ফিট হওয়ার জন্য তাকে প্রায় এক সপ্তাহেরও বেশি সময় লাগবে। তাই সব ধরনের খেলাধুলা থেকে বিরত থাকতে হবে আমেরিকান টেনিস তারকাকে। এ কারণে ওয়ার্ল্ড টিম টেনিস থেকেও বাদ পড়লেন তিনি। এ বিষয়টি আয়োজক কর্তৃপক্ষই নিশ্চিত করেছে। আগামী ৩১ আগস্ট শুরু হবে ইউএস ওপেন। মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টে কোন ধরনের ঝুঁকি না নিতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ২১ গ্র্যান্ডসøামের মালিক সেরেনা উইলিয়ামস।

গত মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেন জিতেই যেন নতুন করে আগমনী বার্তা দিয়েছিলেন সেরেনা। এরপর শুধুই এগিয়ে চলা। আবারও সেই ইউএস ওপেনের সামনেই দাঁড়িয়ে টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি। মৌসুমের চতুর্থ এবং শেষ এই মেজর টুর্নামেন্ট জিততে পারলেই আরেকটি মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি। ক্যালেন্ডার সøাম জয়ের বিস্ময়কর কীর্তি। পারবেন কী সেরেনা উইলিয়ামস? হ্যাঁ, চোট কাটিয়ে ক্যালেন্ডার সøাম পূর্ণ করতে খুবই আশাবাদী তিনি। এ বিষয়ে আমেরিকান এই টেনিস তারকার অভিমত হলো, ‘এ বিষয়ে আমি খুবই আশাবাদী। আশা করছি গ্রীষ্মের বাকি সময়টাতে নিজেকে পুরোপুরি ফিট হিসেবেই খেলতে পারব। তবে তার আগে এই মুহূর্তে আমার কনুই চোট থেকে মুক্তি পাওয়াটা খুবই জরুরী। তাই বাধ্য হয়েই আমাকে এক সপ্তাহের জন্য বিশ্রামে যেতে হচ্ছে।’ আগামী সেপ্টেম্বরেই সেরেনার বয়স হবে চৌত্রিশ। কিন্তু সেরেনাকে দেখে যেন মোটেও তা মনে হয় না। তার প্রমাণ দিয়েছেন উইম্বল্ডনেও। কেননা অল ইংল্যান্ড ক্লাবেও প্রতিপক্ষকে রীতিমতো উড়িয়ে দেন তিনি। সবচেয়ে বেশি বছর বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন সেরেনা। এটা তার ষষ্ঠ উইম্বল্ডন শিরোপা। স্পেনের গারবিন মুগুরুজাকে পরাজিত করে উইম্বল্ডনের ষষ্ঠ এবং ক্যারিয়ারের ২১তম মেজর শিরোপা জয়ের স্বাদ পান তিনি। শুধু তাই নয়, দ্বিতীয়বারের মতো সেরেনা সøাম জয়ের কীর্তিও গড়েন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান এই তারকা। ইউএস ওপেনের আগে সেরেনা উইলিয়ামসকে হাতছানি দিচ্ছে নতুন এক কীর্তি। ১৯৯৮ সালের পর প্রথম মহিলা হিসেবে ক্যালেন্ডার সøাম জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করবেন। তার আগে এই রেকর্ডটি ছিল স্টেফিগ্রাফের দখলে। শুধু তাই নয়, মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জিততে পারলে টেনিসের উন্মুক্ত যুগে স্টেফিগ্রাফের ২২ গ্র্যান্ডসøাম জয়ের রেকর্ডকেও স্পর্শ করবেন তিনি। স্টেফিগ্রাফের সামনে কেবল মার্গারেট কোর্ট। ২৪ গ্র্যান্ডসøাম জিতে টেনিস ইতিহাসে মেজর শিরোপা জয়ের তালিকায় সবার উপরে অবস্থান করছেন যিনি।