১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ম্যাচের ৬০ ভাগ বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে ॥ ল্যাঙ্গেভেল্ট

  • প্রোটিয়া বোলিং কোচের আশা আজ ঘুরে দাঁড়ানোর, বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের প্রশংসা

স্পোর্টস রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে ॥ ডেল স্টেইন, ভারনন ফিল্যান্ডার ও মরনে মরকেল- তিন বিশ্ব কাঁপানো গতিময় বোলার দক্ষিণ আফ্রিকা দলে। এরপরও দ্বিতীয় দিনে খুব বেশি সাফল্য ধরা দেয়নি সফরকারীদের। দারুণ ব্যাটিং করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ এবং এখন পর্যন্ত ম্যাচে নিজেদের ৬০ ভাগ নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে। কিন্তু আজ ঘুরে দাঁড়ানোর সামর্থ্য আছে প্রোটিয়া বোলিং বিভাগের। মঙ্গলবার চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবিই করলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ট। স্টেইন উইকেটশূন্য থাকলেও দেয়ালে পিঠ ঠেকলে ঘুরে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত কিছু করে বসেন এবং সেটা যদি দ্রুতই ঘটে তবে ম্যাচে দুই দলের সহঅবস্থানও রয়েছে বলে মনে করেন প্রোটিয়া বোলিং কোচ।

বাংলাদেশ সফরে স্বেচ্ছায় ওয়ানডে সিরিজ থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন বিশ্বসেরা টেস্ট বোলার ডেল স্টেইন। কিন্তু টেস্টের সেরা এ বোলার একেবারেই ব্যর্থ একটি দিন কাটিয়েছেন মঙ্গলবার, থেকেছেন উইকেটশূন্য। কিন্তু তার ওপর পরিপূর্ণ আস্থা আছে ল্যাঙ্গেভেল্টের। তিনি বলেন, ‘তার ক্যারিয়ারে এ ধরনের একটা দিন অনেক গেছে। আমি মনে করি তিনি বড় ম্যাচের খেলোয়াড়। তিনি এমন একজন যিনি ঘুরে দাঁড়াতে পারেন। যখন তার দেয়ালে পিঠ ঠেকে যায়, তিনি সবসময়ই ভালটা বের করে আনেন।’ ফিল্যান্ডার, মরকেলও যথেষ্ট আক্রমণাত্মক মেজাজেই বোলিং করেছেন। এ বিষয়ে প্রোটিয়া বোলিং কোচ বলেন, ‘আমি মনে করি মরকেল সবচেয়ে আক্রমণাত্মক বোলার। আমরাও আক্রমণাত্মক ছিলাম। এসজি বল দ্রুতই নরম হয়ে যায়। সুতরাং লেন্থ, লাইন এবং স্টাম্পের ওপর চড়াও হওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে আক্রমণাত্মক হতে হবে।’ এসজি বল উপমহাদেশে খেলার জন্য ভাল হলেও সেটা দক্ষিণ আফ্রিকায় তেমন কার্যকর নয় বলে দাবি ল্যাঙ্গেভেল্টের। তবে এখন এসজি বলেই অনুশীলন করছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সবমিলিয়ে এসজি বলে দলের বোলিং নিয়ে তিনি বলেন, ‘যে কোন বোলিং কোচের জন্য আরও চাওয়ার থাকে, কিন্তু এটাই গ্রহণ করতে হবে। আগামীকাল (আজ) গোড়ার দিকেই দুটি উইকেট তুলে নিতে পারি। তাদের সেরা দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদুল্লাহ ও তামিম উভয়েই ভাল ব্যটিং করেছে। কিন্তু আগামীকাল (আজ) ভিন্ন চিত্র দেখা যেতে পারে। আমি মনে করি আমাদের ছেলেরা যথেষ্ট ভাল বোলিং করেছে এবং বাংলাদেশ ভাল ব্যাটিং করেছে।’ দলের বোলিং যেমনই হোক, প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের প্রশংসা ঝরেছে ল্যাঙ্গেভেল্টের কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি খুব কঠিন একটা দিন ছিল। বাংলাদেশ সত্যিই ভাল ব্যাটিং করেছে। তারা ধৈর্য দেখিয়েছে।’ ম্যাচের এই পর্যায়ে অবশ্য বাংলাদেশকেই অনেকখানি এগিয়ে রাখছেন তিনি। ল্যাঙ্গেভেল্ট বলেন, ‘আমি মনে করি এই মুহূর্তে তাদের দিকে ৬০-৪০। কিন্তু খেলাটি মূলত সহাবস্থানেই আছে। তারা যদি আমাদের বিপক্ষে ১০০ রানের লিড নিতে পারে আমাদের সংগ্রাম করতে হবে।’