২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অলিম্পিকের আগে নির্ভার বোল্ট

  • স্বরূপে ফিরতে ফাস্ট ফুডকে না বললেন জ্যামাইকান স্প্রিন্টার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২০০৯ সালে বার্লিনে ট্রেবল, ২০১১ সালে দায়েগুতে ডাবল এবং ২০১৩ মস্কো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপেও ট্রেবল জিতেছেন উসাইন বোল্ট। এছাড়া ক্রীড়াজগতের মহাযজ্ঞ অলিম্পিকেও ডাবল ট্রেবল জয়ের অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। আগামী বছর ব্রাজিলের রাজধানী রিও ডি জেনেরিওতে আবারও বসতে যাচ্ছে অলিম্পিকের আসর। ব্রাজিলেও নিজেকে মেলে ধরতে চান ২৮ বছর বয়সী এই জ্যামাইকান স্প্রিন্টার। এ বিষয়ে অলিম্পিকে ছয় স্বর্ণপদকজয়ী বোল্ট বলেন, ‘নিজের জন্যই আমার সেরাটা ঢেলে দিতে চাই। এটাই আমার মূল লক্ষ্য। এ জন্য সর্বোচ্চটাই করে যাচ্ছি এখন। তবে এই সময় অলিম্পিকের পারফর্মেন্স নিয়ে কোন ধরনের চাপ নেই আমার মধ্যে। আমার যা যা করা দরকার ঠিক সে দিকেই দৃষ্টি দিচ্ছি। আমি চাই কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমেই নিজেকে প্রস্তুত করতে।’ চোটের কারণে সম্প্রতি ডায়মন্ড লীগে অংশগ্রহণ করতে পারেননি উসাইন বোল্ট। তবে চোট কাটিয়ে বর্তমানে কঠোর অনুশীলনে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন তিনি। কোচ গ্ল্যান মিলসের অধীনে নিজেকে প্রস্তুত করছেন গতির এই দানব। আর অনুশীলনে পাচ্ছেন স্বদেশী সতীর্থ ইয়োহান ব্ল্যাককে। আর ব্ল্যাকের মতো স্প্রিন্টারকে অনুশীলনে পাওয়াটা বোল্টের জন্য অতিরিক্ত শক্তি। যা বোল্ট নিজেও স্বীকার করেছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিদিনই এ রকম একজনের সঙ্গে অনুশীলন করাটা নিশ্চিতভাবেই সহায়তা করে। কেননা আপনি তো অবশ্যই জানেন যে কোন একটা ধাপটা আপনাকে ছাড়িয়ে যেতে হবে। সেক্ষেত্রে ব্ল্যাকের মতো একজনকে অনুশীলন সঙ্গী পাওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ ক্যারিয়ারকে দীর্ঘায়িত করার জন্য পছন্দের ফাস্ট ফুডকে না বলে শাক-সবজি জাতীয় খাবারে বেশি মনোযোগ দিচ্ছেন জ্যামাইকান তারকা। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ফাস্ট ফুডের প্রতি দুর্বল ছিলেন তিনি। কিন্তু গত বছর ইনজুরিতে পড়ার পরই সচেতন হয়ে গেছেন তিনি। তাই গতি বাড়াতে ফাস্ট ফুডের প্রতি লোভ ত্যাগ করেছেন বোল্ট। এ্যাথলেটিকস নিয়ে আইএএএফে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ফাস্ট ফুড না খাওয়ার বিষয়ে বোল্ট বলেন, ‘গত মৌসুমে ইনজুরি আক্রান্ত হওয়ার পর আমার মনে হয়েছে, বুড়ো হয়ে যাচ্ছি আমি। তাই খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিয়েছি ফাস্ট ফুড। আগের মতো গতি ফিরে পেতে স্বাস্থ্যকর খাবার খাচ্ছি। আসলে ফাস্ট ফুট বাদ দিয়ে শাক-সবিজ জাতীয় খাবার বেশি বেশি খাচ্ছি আমি।’ তবে এটা যে ত্যাগ করাটা সহজ নয় সেটাও স্বীকার করেছেন তিনি। এ বিষয়ে জ্যামাইকান কিংবদন্তি উসাইন বোল্ট বলেন, ‘সবকিছু আপনি ত্যাগ করতে পারবেন। কিন্তু স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ খুবই কঠিন।’ এ মুহূর্তে ইনজুরি কাটিয়ে সুস্থ বোল্ট। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী শুক্রবার লন্ডনে ডায়মন্ড লীগ মিটে খেলবেন তিনি। তার ইনজুরির কারণে সম্প্রতি ট্র্যাকে জ্বলে উঠেছেন জাস্টিন গ্যাটলিন, টাইসন গে এবং আসাফা পাওয়েলের মতো তারকারা। এবার নতুন করে চ্যালেঞ্জে নামতে যাচ্ছেন বোল্ট।