১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাউফলে হাতুড়ে ডাক্তারের শাস্তি দাবিতে বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ২২ জুলাই ॥ বাউফলের নগরেরহাট এলাকায় এক হাতুড়ে ডাক্তারের শাস্তি দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় লোকজন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে তারা এ বিক্ষোভ মিছিল করেন। জানা গেছে, নওমালা ইউনিয়নের নগরেরহাটে নারায়ন চন্দ্র শীল (৫৫) নামের এক হাতুড়ে ডাক্তারের ফার্মেসি থেকে (পপুলার মেডিক্যাল হল) ঘটনার দিন সকাল ১০টার দিকে বটকাজল গ্রামের তাজুল হাওলাদার (৬৫) নামের এক ব্যক্তি তার হাঁটুর ব্যথার জন্য ডিপো-মেপরোল ৮০ মিলি গ্রাম নামের একটি ইনজেকশন পুশ করেন। এর কিছুক্ষণ পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ সময় তাজুল ইসলামের ছেলে লাল মিয়া ইনজেকশনের বোতলের গায়ে মেয়াদোত্তীর্ণ দেখতে পান। (তৈরি ৪/২/১২ মেয়াদোত্তীর্ণ ৩/৩/১৫) ঘটনাটি তাৎক্ষণিক প্রকাশ পেয়ে গেলে এলাকার কয়েক শ’ বিক্ষুব্ধ লোক ওই হাতুড়ে ডাক্তারের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ বিষয়টি জানার পর বাউফলের ইউএনও আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান ও ইউএইচও ডাঃ মনজুরুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওই মেডিক্যাল হল থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ বিভিন্ন ধরনের ওষুধ জব্ধ করেন।

হবিগঞ্জে খোয়াই নদীতে বাঁধে ভাঙ্গন ॥ আতঙ্ক

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ২২ জুলাই ॥ ভারি বৃষ্টিপাত ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জের সদর উপজেলাধীন শায়েস্তাগঞ্জ-পুরান বাজার সংলগ্ন খোয়াই নদীর ওপর শাহজীবাজার পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্প বাস্তবায়নে নির্মিত বহুল বিতর্কিত অস্থায়ী বাইপাস-ক্রস ড্যাম বাঁধটি ভেসে গেছে। আর এই সৃষ্ট বাঁধটি ভেসে যাওয়ার খোয়াই প্রতিরক্ষা বাঁধে শুরু হয়েছে ভাঙ্গন। ফলে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার অন্তর্গত কুটিরগাঁওসহ আশপাশের অন্তত ২০-২৫টি গ্রামের লোকজন সহায়-সম্বল ও ফসল হারানোসহ প্রাণহানীর আতঙ্কে ভুগছেন। তবে এই বাঁধটি ভেসে যাওয়ায় নদীর অপর পাড়ে অবস্থিত শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় বসবাসরত নাগরিকরা অনেকটা স্বস্তিতে রয়েছেন বলে জনকণ্ঠের কাছে অভিমত প্রকাশ করেছেন।

সূত্র জানায়, ৩৩০ মেগাওয়াট শাহজীবাজার পাওয়ার প্ল্যান্ট বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মৌলভীবাজার জেলার শেরপুর নামক স্থান থেকে ওই নদীর ওপর দিয়ে ১২০ চাকার ট্রাকে করে ২২ মেট্রিক টন ওজনের জেনারেটর আনার প্রয়োজন দেখা দেয়। কিন্তু একই নদীতে থাকা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শায়েস্তাগঞ্জ ব্রিজটি ওপর দিয়ে ওই পরিমাণ জেনারেটর আনা অত্যন্ত ঝুঁকি মনে করে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ‘এবাল লজিষ্টিক’। ফলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি স্থানীয় কতিপয় রাজনৈতিক ও গ্রাম্য প্রভাবশালীদের হাত করে রাতের আঁধারে শুরু করে ওই ব্রিজ থেকে ৫০ মিটার দূরে নদীটির মাঝ বরাবরে বাঁধ নির্মাণ। প্রশাসনকে উপেক্ষা করে এমন ক্ষতিকর বাঁধ নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে বরং একরকম বুদ্ধির খেলায় একটি রেজ্যুলেশনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটির কাজটিকে বৈধতা দেয়া হয়। তবে এই বাঁধ নির্মাণ করে ভারি মালামাল আনার জন্য ভবিষ্যতে কোন ক্ষয়ক্ষতি হলে তার জন্য সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি দায়ী থাকবে বলে ঘোষণা দেন ডিসি। অন্যদিকে এই কাজের তদারকি করার জন্য গুটিকয়েক ব্যক্তিকে নিয়ে ৫ সদস্যের একটি কমিটিও করা হয়। এই ধরনের বৈধতা ও কমিটি গঠনকে অনেকেই এক রকম চালাকি বলে অভিমত দেন।

বরিশালে বিএনপি নেতার হাত থেকে রক্ষা পেতে গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ বিএনপি নেতা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর জুলুম, অত্যাচার, নির্যাতন ও জবর দখলের প্রতিবাদে এবং প্রশাসনের সহায়তা কামনা করে বুধবার সকালে সংবাদ সম্মেলন করেছেন অসহায় গ্রামবাসী। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়নের চররমজানপুর গ্রামের। স্থানীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ওই গ্রামের বাসিন্দা শেখ মোঃ মুজিবুর রহমান লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, বিগত বিএনপি-জামায়াতের চারদলীয় জোট সরকারের আমলে (২০০১ সালে) স্থানীয় প্রভাবশালী বিএনপি নেতা কালিপদ ম-ল এলাকার কতিপয় চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের নিয়ে একটি ক্যাডার বাহিনী গঠন করেন। পরবর্তীতে ওই সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্যরা কালিপদ ম-লের উদ্যোগে দিয়াশুর ও চরদিয়াশুর গ্রামের মধ্যবর্তী করম আলী চৌকিদারের বাড়ির সামনে (রাস্তার পাশে) আওয়ামী লীগ সমর্থক নেতাকর্মীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করে পাকা ভবনের বিএনপির ক্লাব ঘর নির্মাণ করেন। একপর্যায়ে ওই ক্লাব ঘরটি বিএনপি ক্যাডারদের টর্চার সেলে পরিণত হয়। আরও জানা গেছে, প্রভাবশালী বিএনপি নেতা কালিপদ ম-ল সুশীল ম-ল ও গীতা ম-লের ৭ একর ১২ শতক পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করে নিয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ