১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেরপুরে গারো পাহাড়ে পরিবেশ বিপর্যয়

শেরপুরে গারো পাহাড়ে পরিবেশ বিপর্যয়

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর ॥ বালি উত্তোলন, পরিবেশ বিপর্যয়কারী বৃক্ষ রোপন ও নদ-নদীর ড্রেজিং না করাসহ নানা কারণে শেরপুরের গারো পাহাড়ে ক্রমেই ঘটছে পরিবেশ বিপর্যয়। এতে অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে এলাকার আদিবাসী পরিবারগুলো। নিষ্পেষিত হচ্ছে আদিবাসী জনগোষ্ঠীসহ উপজেলার ২০/২৫টি গ্রামের প্রায় অর্ধলাখ মানুষের জীবন-জীবিকা। এভাবে চলতে থাকলে হয়ত অচিরেই ওইসব জনগোষ্ঠীর ওপর নেমে আসবে ভয়ংকর পরিণতি। এলাকাবাসী, জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় প্রশাসনসহ বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া গেছে ওইসব তথ্য।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গেলে বালিজুরি এলাকার ব্রতিন মারাক জানান, পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে এখন বনে তেমন পশুপাখি নেই। আদিবাসীরাও অস্তিত্ব সংকটের মুখে। আদিবাসী নারী প্রমেলা মারাক জানান, পরিবেশের ভারসাম্যহীনতায় এখন পাহাড়েও ঔষধি গাছ খুজে পাওয়া যায় না। সামান্য অসুখ হলেই যেতে হচ্ছে হাসপাতালে। আদিবাসী নেতা ও উপজেলা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রাঞ্জল এম সাংমা বলেন, গারো পাহাড়ের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে প্রশাসন ও স্থানীয় দায়িত্বশীল মহলের আন্তরিকতাসহ এলাকাবাসীর সহায়তার কোন বিকল্প নেই। এজন্য বিভিন্ন এনজিওগুলোও এগিয়ে আসতে পারে। ফলজ ও ওষধি বৃক্ষ রোপন করে গারো পাহাড়ের ঐতিহ্য এখনও অনেকটাই ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

এই মাত্রা পাওয়া