২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্রিটেন আমার সঙ্গে যুদ্ধাপরাধীর চেয়েও নিকৃষ্ট আচরণ করেছে

  • জুলিয়ান এ্যাসাঞ্জের অভিযোগ

জুলিয়ান এ্যাসাঞ্জ দাবি করেছেন যে, ব্রিটিশ আদালত তার প্রতি একজন যুদ্ধাপরাধীর চেয়েও নিকৃষ্ট আচরণ করছে। তথ্য ফাঁসকারী সাড়াজাগানো ওয়েবসাইট উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা ব্রিটিশ আদালতের আরোপ করা ‘কঠিন জামিনের শর্তের’ তীব্র সমালোচনা করেছেন। খবর টেলিগ্রাফের।

জার্মান সাময়িকী ডার স্পাইজেলকে তিনি বলেন, ‘আমাকে গোড়ালির চারপাশে একটি নজরদারি করার বস্তু পরে থাকতে হতো। সাবেক যুগোসøাভিয়ার যেসব কথিত যুদ্ধাপরাধী ব্রিটেনে জামিনে রয়েছে তাদেরও এ অবস্থার মুখোমুখি হতে হয় না।’ যৌন নির্যাতনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুইডেনে প্রত্যর্পণ এড়ানোর জন্য এ্যাসাঞ্জ গত তিন বছর ধরে ইকুয়েডর দূতাবাসে বাস করছেন। সেখানে তাকে কূটনৈতিক আশ্রয় মঞ্জুর করা হয়েছে। নগদ অর্থ ও জামানতে ২ লাখ ৪০ হাজার পাউন্ড, একটি ইলেকট্রনিক ট্যাগ পরে থাকা এবং প্রতিদিন থানায় রিপোর্ট করার শর্তে ২০১০ সালে তাকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়। এ্যাসাঞ্জ জোর দিয়ে বলেন, দু’জন নারীকে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন করার অভিযোগ ভুয়া। তার আশঙ্কা এসব অভিযোগ তাকে শেষ পর্যন্ত আমেরিকান আদালতে পাঠিয়ে ছাড়বে। উইকিলিকস ফাঁস করা তারবার্তার প্রকাশ অব্যাহত রেখেছে। তিনি আশা করেন এগুলো প্রকাশের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। ফাঁস করা তথ্যসামগ্রীতে আমরা ডুবে থাকি। অর্থনৈতিকভাবে উইকিলিকসের জন্য চ্যালেঞ্জটা হলো আমাদের যে পরিমাণ তথ্যসামগ্রী এসেস করতে হয় সে তুলনায় আমরা আমাদের আয় বৃদ্ধি করতে পারব কিনা। তিনি উইকিলিকসকে অর্থ প্রদান স্থগিত রাখার সিদ্ধান্তকে যুক্তরাষ্ট্রের কিউবার ওপর অবরোধের সঙ্গে তুলনা করেন।