১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ক্ষুদে সঙ্গীত প্রতিভা অপূর্ব

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আমাদের দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অসংখ্য সাংস্কৃতিক প্রতিভা ছড়িয়ে রয়েছে। যথাযথ উদ্যোগ, পরিচর্যা এবং মূল্যায়নের অভাবে এসব প্রতিভা এক সময় হারিয়ে যায়। এমনি এক সম্ভাবনাময় ক্ষুদে সঙ্গীত প্রতিভা অপূর্ব গুন। মহুয়া, মলুয়ার জেলা শহর নেত্রকোনার ক্ষুদে সঙ্গীতশিল্পী অপূর্ব এলাকার আদর্শ শিশু বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি অপূর্ব স্থানীয় শতদল সাংস্কৃতিক একাডেমিতে সঙ্গীতে তালিম নিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের ক্ষুদে সদস্য অপুর্ব একাডেমির প্রতিটি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় গত পহেলা বৈশাখে নেত্রকোনায় বৈশাখ বরণ অনুষ্ঠানে অপূর্ব একটি আধুনিক গান পরিবেশন করে দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। ওই অনুষ্ঠানে দর্শকদের সাড়া পাওয়ায় সে অনেকটাই উৎসাহিত। সঙ্গীত সাধনার যাত্রাপথে এ ধরনের অনুষ্ঠানে আরও পারফর্ম করার সুযোগ চায় অপুর্ব। তাহলে তার সঙ্গীত সাধনার যাত্রাপথ অনেকটাই মসৃণ হবে বলে মনে করে সে। বাবা-মায়ের অনুপ্রেরণায় ৬ বছর বয়সেই অপূর্বর গানের প্রতি তার ভাললাগার বীজ অঙ্কুরিত হয়। এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন গৃহ শিক্ষিকা নেত্রকোনার সঙ্গীতশিল্পী তন্দ্রা রানী সাহা। এছাড়া শতদল সাংস্কৃতিক একাডেমির পরিচালক আলী আসকার খান সেন্টু এবং রতন চন্দ্র সরকারের তত্ত্বাবধানে সঙ্গীতে দীক্ষা নিচ্ছে সে। ভবিষ্যতে সে দেশের বড় ও গুণী সঙ্গীতশিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখে। সে লক্ষ্যে সঙ্গীত সাধনা চালিয়ে যাচ্ছে। স্বপ্নপূরণে সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা ও আশীর্বাদ কামনা করে অপূর্ব। তার স্বপ্ন সফল হোক, ভবিষ্যতে বড় সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার মাধ্যমে দেশে এবং দেশের বাইরে সুনাম অর্জন করবে সেই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।