২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেক্সিকো-জ্যামাইকা শিরোপা লড়াই

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কনকাকাফ গোল্ডকাপ ফুটবলের ফাইনালে উঠেছে মেক্সিকো ও জ্যামাইকা। বুধবার সেমিফাইনালে মেক্সিকো ২-১ গোলে পানামাকে ও জ্যামাইকা একই ব্যবধানে পরাজিত করে ফেবারিট যুক্তরাষ্ট্রকে। ২৬ জুলাই শিরোপানির্ধারণী ম্যাচে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সফল নয়বারের চ্যাম্পিয়ন মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে জ্যামাইকা।

মেক্সিকো ও পানামার ম্যাচটি নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ১-১ গোলে সমতায় ছিল। অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচটিতে মেক্সিকোর জয়ের নায়ক আন্দ্রেস গুয়ার্ডাডো। পিএসভির এই উইঙ্গার জোড়া গোল করে মেক্সিকোকে ১২ বারের মতো গোল্ডকাপের ফাইনালে তোলেন। ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে রোমান টোরেসের গোলে এগিয়ে যায় পানামা। এরপর গোল পরিশোধের জন্য হন্যে হলেও তা পাচ্ছিল না মেক্সিকানরা। ম্যাচের ২৫ মিনিটে দলের অন্যতম সেরা তারকা লুইস টাজেডা লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় পানামা। এরপরও দলটি দুর্দান্ত খেলতে থাকে।

টোরেসের গোলে ফাইনালের দিকেই এগোচ্ছিল পানামা। কিন্তু বিপত্তি করেন রেফারি। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা শেষ হলে অতিরিক্ত ১০ মিনিট দেন তিনি। এই সময়ের শেষ মিনিটে অর্থাৎ দশম মিনিটে বিতর্কিত পেনাল্টি পায় মেক্সিকো। তা থেকে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান গুয়ার্ডাডো। সঙ্গে সঙ্গেই শেষ হয় নির্ধারিত সময়ের খেলা। এরপর ম্যাচ গড়ায় বাড়তি ৩০ মিনিটে। ১০৬ মিনিটে আবারও পেনাল্টি পায় মিগুয়েল হেরেরার দল। এবারও স্পট কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করে মেক্সিকোকে ফাইনালে তুলে নেন গুয়ার্ডাডো।

আরেক সেমিফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে জ্যামাইকা। টানা পাঁচ ফাইনাল খেলে এবারের সেমিফাইনাল খেলতে আসা যুক্তরাষ্ট্রকে আটালান্টায় ২-১ গোলে হারায় জ্যামাইকা। জর্জিয়া ডোম স্টেডিয়ামে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় জ্যামাইকা। শেষ আটে কিউবাকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জ্যামাইকাকে এগিয়ে দেয়া গোলটি ৩১ মিনিটে হেড থেকে করেন ড্যারেন ম্যাটকস। ৩৫ মিনিটে ফ্রিকিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জাইলস বার্নেস। বিরতির পর ম্যাচের ৪৭ মিনিটে মাইকেল ব্র্যাডলি যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে গোল করে ম্যাচে উত্তেজনা ফেরে। এই গোলের পর জ্যামাইকার রক্ষণে বেশ চাপ তৈরি করে যুক্তরাষ্ট্রের আক্রমণভাগ। তবে আর কোন গোল পায়নি জার্গেন ক্লিন্সম্যানের দল। যে কারণে প্রথমবারের মতো গোল্ডকাপের ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে জ্যামাইকা। ম্যাচ শেষে যুক্তরাষ্ট্রের কোচ জার্গেন ক্লিন্সম্যান বলেন, আমার দল জঘন্য খেলেছে। দলের কোন কিছুই সঠিক হয়নি। এই ব্যর্থতা মেনে নেয়া কঠিন। অন্যদিকে জ্যামাইকার কোচ উইলফ্রেড ভাসছেন আনন্দের আতিশয্যে। তিনি বলেন, ছেলেরা নিজেদের যোগ্যতাবলেই ফাইনালে উঠেছে। এটা অসাধারণ অর্জন। এখনও আমাদের মিশন শেষ হয়ে যায়নি। মেক্সিকো কঠিন প্রতিপক্ষ, তাদের ফাইনালে হারিয়ে শিরোপা জিততে চাই। দলটির অন্যতম সেরা তারকা বার্নেস বলেন, এটা অবিশ্বাস্য। এই অনুভূতি ব্যক্ত করার নয়। তবে ফাইনালের আগে আমাদের আপ্লুত হওয়া চলবে না।

নির্বাচিত সংবাদ