১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তামিমকে ধাক্কা, ককের জরিমানা

স্পোর্টস রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে ॥ ঢাকায় দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী দেখিয়ে খারাপ অবস্থানে ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ওই ম্যাচে বাংলাদেশী ওপেনার তামিম ইকবালকে কাঁধ দিয়ে ধাক্কা দেয়ার মাসুল গুনতে হয়েছিল প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান রাইলি রুশোকে। সিরিজ শেষ হওয়ার আগেই একই ঘটনার জন্ম দিয়ে জরিমানা গুনতে হলো দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি কককে। এবারও ঘটনার শিকার তামিম! চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন লাঞ্চের বিরতি ঘোষণার পর ড্রেসিং রুমের দিকে যাওয়ার মুহূর্তে তামিমকে কাঁধের ধাক্কা দিয়েছিলেন কক। পরে সংবাদ সম্মেলনে ধাক্কার বিষয়টি দেখেননি বলে দাবি করেন প্রোটিয়া বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ট এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও কোন মন্তব্য করেননি। তবে ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড বিষয়টি ভুলে যাননি। তিনি কককে ম্যাচ ফি’র ৭৫ ভাগ জরিমানা করেছেন। তবে রুশো ৫০ শতাংশ জরিমানা গুনেই রক্ষা পেয়েছিলেন।

তামিম ব্যাটিং করার সময় অনবরতই তাকে কথার খোঁচা দিয়ে গেছেন কক। দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটিও হয়েছে বিষয়টা নিয়ে। যদিও ফিল্ড আম্পায়ারের হস্তক্ষেপে সেটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। মধ্যাহ্ন বিরতি ঘোষণার পরে তামিম যখন সাজঘরের দিকে যাচ্ছিলেন সে সময় কক তাকে ধাক্কা দেন। এ বিষয়ে ম্যাচ রেফারি এক বার্তায় বলেন, ‘লাঞ্চের আগের ওভারটি শেষ হয়ে যাওয়ার পর কক স্টাম্পের সামনে দিয়ে হেঁটে গেছেন তামিমকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য। আর সেটা করতে গিয়ে কুইন্টন ডি কক কয়েকবার তামিমকে কাঁধ দিয়ে ধাক্কা মেরেছেন। আর এটাই দু’জনের মধ্যে বাগ্বিত-ার জন্ম দিয়েছিল। এ ধরনের ঘটনার কোন স্থান নেই ক্রিকেট মাঠে।’ আইসিসির আচরণবিধির ২.২.৭ ধারায় অসংলগ্ন আচরণ এবং যে কোন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের সঙ্গে শারীরিক সংঘর্ষ অপরাধ। কোনভাবেই একজন খেলোয়াড় অন্যের কাঁধে ধাক্কা দিতে পারবেন না। এটা শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল। এ কারণেই পরে কককে দোষী সাব্যস্ত করেছেন ম্যাচ রেফারি। আক্কেল সেলামি হিসেবে এখন ম্যাচ ফি থেকে ৭৫ ভাগই জরিমানা দিতে হবে দক্ষিণ আফ্রিকান এ ওপেনারকে। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে রুশো একই কা- তামিমের সঙ্গে ঘটানোর পর হেরে গিয়েছিল প্রোটিয়ারা। তাকে জরিমানা করার পরেও একই দলের আরেক ক্রিকেটার তামিমের সঙ্গে পুনরাবৃত্তি করলেন সেই ঘটনার। সে জন্য জরিমানার পরিমাণটাও বেড়েছে। দেখা যাক দ্বিতীয় ওয়ানডের মতো এবারও বাংলাদেশ দারুণ কিছু করে দেখাতে পারে কি না। অবশ্য এমনিতেও ম্যাচের তৃতীয় দিনের মধ্যভাগ পর্যন্ত চট্টগ্রাম টেস্টের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের দখলেই রেখেছে টাইগারবাহিনী।