১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাকিস্তানের নতুন ষড়যন্ত্র!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পাকিস্তানী মানসিকতা যে কতটা জঘন্য হতে পারে, তার আরও একটি নিদর্শন তৈরি করতে যাচ্ছে দেশটির ক্রিকেট। বাংলাদেশ সফরে টাইগারদের কাছে ‘হোয়াইটওয়াশ’ হওয়ায় আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ পিছিয়ে ‘নয়ে’ নেমে গিয়েছিল আজহার আলির দল। ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে প্রবল শঙ্কা তৈরি হওয়ায় জিম্বাবুইয়েতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে ভেতরে ভেতরে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে খেলার পরিকল্পনাটা প্রায় করেই ফেলেছিল তারা। লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশকে ছিটকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জায়গা করে নেয়া। অথচ শ্রীলঙ্কা সফরে এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিত করায় ‘আট’ নম্বর দল হিসেবে সেটি নিশ্চিত হওয়ায় এখন ‘ষড়যন্ত্রের’ ওই সিরিজ খেলতে চাইছে না পাকিস্তান! কারণটা অনুমেয়, ত্রিদেশীয় সিরিজ খেললে ফের পা ফসকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার স্বপ্ন ধুলোয় মিশে যেতে পারে পাকিদের!

শ্রীলঙ্কা সফরে চতুর্থ ওয়ানডেতে ৭ উইকেটের বড় জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করে পাকিস্তান। যারা বাংলাদেশে ‘হোয়াইটওয়াশ’ হয়েছে, সেই তারা শ্রীলঙ্কার মাটিতে লঙ্কানদের বিপক্ষে এভাবে সাফল্য পাবেÑ এমনটা হয়ত খোদ পাকিস্তানীরাও ভাবেননি। তাই ভেতরে ভেতের ষড়যন্ত্রের ত্রিদেশীয় খেলার পরিকল্পনা করছিল তারা। কিন্তু সিরিজ জয়ের পর র‌্যাঙ্কিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পেছনে ফেলে ‘আট’ নম্বরে উঠে এসেছে পাকিস্তান। ৯০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে নিশ্চিত করেছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলা। ম্যাচ শেষের প্রতিক্রিয়ায় বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে উল্লেখ করেছিলেন অধিনায়ক আজহার। ‘নয়’ নম্বরে নেমে যাওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের রেটিং ৮৮। মাত্র ২ রেটিং পিছিয়ে ক্যারিবীয়রা। ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আট দল ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ পাবে। আর যে বাংলাদেশকে ফাঁদে ফেলতে এত ‘ষড়যন্ত্র’, দুর্ধর্ষ দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সেই টাইগাররা এখন ধরাছোঁয়ার বাইরে, ‘সাত’ নম্বরে থাকা মাশরাফি-বাহিনীর হাতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অংশগ্রহণের টিকেট।

এ অবস্থায় ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে গেলে নতুন করে ঝুঁকির মুখে পড়বে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিরা। বিশেষ করে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ফেবারিট হলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে খুব সহজে হেরে বসতে পারে আজহার আলির দল! সেক্ষেত্রে পাল্টে যাবে দৃশ্যপট। কারণ ক্যারিবীয়দের সঙ্গে তাদের রেটিংয়ের ব্যবধান মাত্র ২। তাই যে উইন্ডিজকে এই কয়েক দিন তৈলমর্দন করছিল, সেই তাদেরই বাইরে রেখে জিম্বাবুইয়ের সঙ্গে শুধু টি২০ খেলতে চাইছে পাকিস্তান! দেশটির শক্তিশালী সব সংবাদমাধ্যমে বোর্ড (পিসিবি) কর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে। তবে আগস্টের ওই সিরিজ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুইয়ান কর্তাদের পক্ষ থেকে এ নিয়ে এখনও কিছু বলা হয়নি। এক চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার আশায় ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেটের আদর্শেই আঘাত করেছে পাকিস্তান। রাজনৈতিক বৈরিতার পাশাপাশি বাংলাদেশের সঙ্গে শীতল সম্পর্কে নতুন করে আঘাত হানে।

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে পাকিদের ষড়যন্ত্র নিয়ে এদেশের সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক-টুইটারে ঝড় ওঠে। এমনিতে জঙ্গী হামলা ও সন্ত্রাসী কর্মকা-ের জন্য দীর্ঘ অর্ধযুগ ধরে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ হয়ে আছে। কোন বিদেশী দল সেখানে যাচ্ছে না। তারপর এভাবে প্রতিষ্ঠিত দেশগুলোর সঙ্গে অহেতুক ঝামেলা দেশটির ক্রিকেটের জন্য আরও অমঙ্গল বয়ে আনবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কেবল উইন্ডিজ নয়, জিম্বাবুইয়ের সঙ্গেও সম্পর্কের অবনতি হতে পারে। কথায় আছে, ‘পরের জন্য গর্ত খুঁড়লে সেই গর্তে নিজেদেরই পড়তে হয়।’ নিজ মাটিতে নির্বাসিত পাকিস্তানকে যেখানে বেশি করে সুসম্পর্ক তৈরি করার কথা সেখানে, এ নিয়ে বাংলাদেশ, জিম্বাবুইয়ে ও উইন্ডিজের সঙ্গে তাদের সম্পর্কটা আরও খারাপই হলো!

পূর্বনির্ধারিত সূচী অনুযায়ী ওয়ানডে ও টি২০ খেলার কথা ছিল। এখন নতুন সমীকরণে পাকিরা ওয়ানডে বাদ দিয়ে কেবল টি২০ সিরিজ খেলতে চাইছে। ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান যে জিম্বাবুইয়ের কাছেও হেরে বসতে পারে, সেটি তারা নিজেরাও ভাল করেই জানে!

নির্বাচিত সংবাদ