১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পার্বতীপুর রঘুনাথপুরের সংখ্যালঘুরা হুমকির মুখে

পার্বতীপুর রঘুনাথপুরের সংখ্যালঘুরা হুমকির মুখে

নিজস্ব সংবাদদাতা,পার্বতীপুর ॥ পার্বতীপুরের রঘুনাথপুর ঘাটপাড়ার হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন

জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে আজ শনিবার বেলা ১১ টায় পার্বতীপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে গ্রামবাসীদের লিখিত বক্তব্যে বলা হয় ঈদের দিন রাত ৯.৩০ মিনিটে দুবৃর্ত্তরা দুদফা হামলা চালিয়ে মন্দিরসহ বসতি পুড়ে দেয়। এ প্রেক্ষিতে পার্বতীপুর মডেল থানায় দুটি মামলা হয়েছে। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে গ্রামে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প বসানো হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত অপরাধে মোঃ মোজাহার (৫৩) , মোঃ জাকির হোসেন(৪৫) ও তানভির( ২০) গ্রেফতার হয়েছে। বাকী পলাতক আসামীরা মোবাইল ফোনে গ্রামবাসীদের প্রতিনিয়ত প্রাননাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। বলছে পুলিশ প্রহারায় তোমরা কতদিন থাকবে। বাচতে চাইলে ভিটামাটি ছেড়ে ভারতে চলে যাও। দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের মৃত করতোয়া নদীর তীরে গ্রামটিতে ৩৫ ঘরের বসত । জমি দখলে নিতে এ এলাকাসহ পার্শ্ববর্তী বদরগঞ্জ উপজেলা থেকে যতসব দাগী সন্ত্রাসী ও জামায়াত- শিবির ক্যাডারদের ভাড়া করে এনে গ্রামে অগ্নিসংযোগসহ ত্রাস সৃষ্টি করা হয়।যোগাযোগ করলে পার্বতীপুরের ইউএনও রাহেনুল ইসলাম জানান, ঘটনার পরদিন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুড়ে যাওয়া প্রতিটি মন্দিরের জন্য ১ মে.টন করে গম বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ক্ষয়-ক্ষতি নিরূপণ করে আরও বরাদ্দ দেওয়া হবে। গ্রামবাসীদের নিরাপত্তায় সবকিছু করা হবে। মডেল থানার ওসি মাহমুদুল আলম জানান তারা যতদিন চাইবে ততদিন সেখানে পুলিশ ক্যাম্প থাকবে।