২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফের এক্সিম ব্যাংকের এমডি হলেন ড. হায়দার

সাফল্যের সঙ্গে প্রথম মেয়াদ শেষ করার পর ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া এক্সিম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে পুনঃনিয়োগ লাভ করেছেন। তাঁর এ পুনঃনিয়োগ ২৫ জুলাই ২০১৫ থেকে কার্যকর হয়েছে। ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী ১৯৮৪ সালে প্রবেশনারি অফিসার হিসেবে তার ব্যাংকিং জীবনের সূচনা করেন। ২০০০ সালে তিনি ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে এক্সিম ব্যাংকে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি বিভিন্ন শাখার শাখা ব্যবস্থাপক ও প্রধান কার্যালয়ের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের প্রধান হিসেবে দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৮ সালে উপব্যবস্থাপনা পরিচালক, ২০১১ সালে অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন এবং সর্বশেষ ২০১২ সালের ২৫ জুলাই ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন।

ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া কিশোর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ২ নম্বর সেক্টরে সক্রিয়ভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে সাফল্যের ভাস্বর ড. হায়দার আলী মিয়া দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পদকে ভূষিত হয়েছেন। -বিজ্ঞপ্তি

রংপুর চেম্বারের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর ॥ রংপুর বিভাগে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন রংপুর চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির ২০১৫-১৭ সালের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে নির্বাচিত পরিচালনা পর্ষদের কর্মকর্তা ও পরিচালকবৃন্দের অভিষেক এবং শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বৃহস্পতিবার চেম্বার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট ব্যাংকার আতোয়ার রহমান সরকার নবনির্বাচিতদের শপথবাক্য পাঠ করান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর ডাইরেক্টর এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রংপুর জেলা ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার মোছাদ্দেক হোসেন বাবলু। অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু এবং নবাগত প্রেসিডেন্ট আবুল কাশেম।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে চিটাগাং চেম্বার সভাপতির সৌজন্য সাক্ষাত

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম। গত ২১ জুলাই বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে এ সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়। চেম্বার সভাপতি এ সময় চট্টগ্রাম বন্দরসহ অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি চট্টগ্রামকে প্রকৃত অর্থে বাণিজ্যিক নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে রাষ্ট্রপতির দৃষ্টি আকর্ষণ ও সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়ের লক্ষ্যে বঙ্গভবনে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদ সদস্যবৃন্দ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিকবৃন্দ, নেতৃস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ সুশীল সমাজের আমন্ত্রিত ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।