২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টানা আট দিন ঝরছে শ্রাবণের ধারা, চলবে আরও ৩ দিন

টানা আট দিন ঝরছে শ্রাবণের ধারা, চলবে আরও ৩ দিন
  • মৌসুমী বায়ু সক্রিয়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অনেকদিন ধরে সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী বায়ু। টানা আটদিন ধরে ঝরছে শ্রাবণের ধারা। বাংলাদেশে প্রবেশ করার পর এখন পর্যন্ত দুর্বল হয়ে পড়েনি মৌসুমী বায়ু। বর্তমানে সাগরে সৃষ্টি হয়েছে গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরসমূহের ওপর দিয়ে ঝড়োহাওয়া বইতে পারে। সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে। শনিবার ১২ ঘণ্টায় সারাদেশে বৃষ্টি হয়েছে ২ হাজার ২শ’ মিলিমিটার, যা স্বল্প সময়ে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত। আর চলতি মাসে মোট বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ১১ হাজার মিলিমিটারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। আরও তিন দিন পর বৃষ্টি হ্রাস পেতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, আজ রবিবার দুপুর পর্যন্ত খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রামের কোথাও কোথাও ভারি বর্ষণ হতে পারে। পাশাপাশি রাজধানী ঢাকায় আবহাওয়া থাকতে পারে মেঘলা ও স্বল্প বর্ষণমুখর। ভারি বর্ষণে চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের আশঙ্কাও রয়েছে। স্থানীয়দের এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। সঙ্কেতের আওতায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর এলাকার মানুষজনকে সতর্ক থেকে চলতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। আবহাওয়া অধিদফতর আরও জানায়, মৌসুমী বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, বিহার, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে অসম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটির বর্ধিতাংশ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র প্রবল অবস্থা বিরাজ করছে। আজ রবিবার রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ এবং দেশের অন্যত্র মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।