১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বান্দরবানে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের সরে যেতে নির্দেশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বান্দরবান, ২৫ জুলাই ॥ টানা বর্ষণের কারণে পাহাড়ের পাদদেশে থাকা ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরে যেতে নির্দেশ দিয়েছে বান্দরবান জেলা প্রশাসন।

জানা গেছে, টানা দু’দিনের অবিরাম বর্ষণের কারণে পাহাড় ধসের আশঙ্কায় পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের দ্রুত সরে যেতে শনিবার সকাল থেকে জেলা উপজেলায় মাইকিং করছে স্থানীয় প্রশাসন।

জেলা শহরের ইসলামপুর, বনরূপা, হাফেজঘোনা, বালাঘাটা, কালাঘাটা, লাঙ্গিপাড়া ও বাসস্টেশন এলাকার পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় শত শত পরিবার বসবাস করে আসছে। ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণ করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে পাঁচটি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

এদিকে জেলার লামা উপজেলার মধু ঝিড়ি এলাকায় দুপুরে পাহাড় ধসের একটি বসত ঘর বিধ্বস্ত হলেও বাসায় কেউ উপস্থিত না থাকার কারণে হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি। বর্ষণে জেলার সাঙ্গু ও মাতামুহুরি নদীতে পানি বাড়ার কারণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। লামা উপজেলার লামা বাসস্টেশনসহ বাজার বন্যার পানিতে প্লাবিত হচ্ছে। টানা বর্ষণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে, ব্যবসা বাণিজ্যে নেমে এসেছে স্থবিরতা।

নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষ পাহাড় কেটে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করার কারণে পাহাড় ধসে বান্দরবান পার্বত্য জেলার ৭টি উপজেলায় প্রতিবছর নিহত, আহত হবার ঘটনা ঘটে।

বান্দরবানের পৌর মেয়র জাবেদ রেজা বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে যেতে প্রচার চালানো হচ্ছে।

মাগুরায় গুলিবিদ্ধ একজনের মৃত্যু ॥ গ্রেফতার এক

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাগুরা, ২৫ জুলাই ॥ মাগুরা শহরের দোয়ারপাড় এলাকায় আওয়ামী যুবলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের সময় গুলিবিদ্ধ আব্দুল মোমিন (৬১) শুক্রবার গভীর রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাগুরা সদরে মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ এই ঘটনায় একজনকে আটক করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে মাগুরা শহরের দোয়ারপাড়ের আওয়ামী যুবলীগ কর্মী আজিবর ও মুহম্মদ আলী হোসেনের গ্রুপের সঙ্গে অপর যুবলীগ কর্মী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ভুইয়া গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। এ সময় প্রতিপক্ষ গ্রুপ কামরুল ভুইয়ার বাড়িতে ঢুকে গুলি ছুড়লে কামরুলের বড় ভাই বাচ্চু ভুইয়ার স্ত্রী নাজমা বেগম, চাচা আব্দুল মোমিন ও মিরাজ হোসেনসহ এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে শুক্রবার রাতে আব্দুল মোমিন মারা যান। এ ঘটনায় হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। চৌরঙ্গী মোড়ে অনুষ্ঠিত এ মিছিল-সমাবেশ ও মানববন্ধন এলাকার শত শত মানুষ অংশ নেয়।