২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পিরানহা ও বিষাক্ত চিংড়ি আটক ॥ ৫ ব্যবসায়ীর জেল-জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ২শ’ কেজি নিষিদ্ধ পিরানহা এবং ৫শ’ কেজি বিষাক্ত জেলি মিশ্রিত চিংড়ি জব্দ করেছে র‌্যাব-২’র ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ঘটনায় পাঁচ পাইকারি ব্যবসায়ীকে জেল ও ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, পিরানহা সংরক্ষণকারী এক মাসের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত মোহাম্মদ মাহবুব (৩৫), এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত পাইকারি চিংড়ি ব্যবস‍ায়ী বশির আহমেদ (৪৪), ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত দেবাশীষ বিশ্বাস (২২) এবং পাঁচ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত সাইদুল ইসলাম (২৭) ও শফিকুল ইসলাম (২২)।

রবিবার ভোর থেকে সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত কারওয়ানবাজারের মাছের আড়তে র‌্যাব-২ ও মৎস্য অধিদফতরের যৌথ অভিযান শেষে তাদের এ শাস্তি দেওয়া হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দিন জানান, নিষিদ্ধ পিরানহা এবং বিষাক্ত জেলি মিশ্রিত চিংড়ি বিক্রির উদ্দেশে তা সংরক্ষণের অপরাধে পাঁচ পাইকারি ব্যবসায়ীকে আটক করে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এসব ব্যবসায়ী অধিক লাভের আশায় চিংড়ি মাছের মাথা ও লম্বা পায়ের মধ্যে সিরিঞ্জের মাধ্যমে বিষাক্ত জেলি ও পানি ঢুকিয়ে দেয়। যা চিংড়ি মাছকে দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করে রাখে। এছাড়া মাছের স্বাভাবিক ওজনকে বৃদ্ধি করে। ফলে এই মাছ কিনে ক্রেতা শারীরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এবং আর্থিকভাবে প্রতারিত হন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, জব্দকৃত মাছে বিষাক্তের মাত্রা পরীক্ষা করে খাওয়ার উপযোগী হলে তা নিকটস্থ এতিমখানায় দেওয়া হবে।

প্রাকৃতিকভাবেই পিরানহা একটি বিষাক্ত মাছ। ফলে এটি ক্রয়-বিক্রয় সরকারি নীতি অনুযায়ী নিষিদ্ধ বলেও জানান ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দিন। পিরানহা মাছ মৎস্য অধিদফতরের কছে হাস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে তারাই সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানান হেলাল উদ্দিন।