১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘ছাত্রদল সভাপতিকে গ্রেফতার সরকারের নীলনকশা’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানকে গ্রেফতার সরকারের নীলনকশা বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক ছাত্র নেতারা।

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে রাজীব আহসান’র গ্রেফতারের প্রতিবাদে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ মন্তব্য করেন।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, আহ্বায়ক ও প্রথম যুগ্ম-আহ্বায়করা যৌথভাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

ছাত্রদলের সাবেক নেতারা বলেন, আগামীদিনে জাতিকে দক্ষ নেতৃত্ব থেকে বঞ্চিত ও মেধাশূন্য করার নীল নকশা হিসেবে রাজীব আহসানকে নাটক সাজিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক কাজী আসাদুজ্জামান বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হওয়ার কথা ছিলো ছাত্র-ছাত্রীদের জ্ঞান অর্জন, গবেষণা ও বিভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী ছাত্র সংগঠনগুলোর গণতান্ত্রিক সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড চর্চার কেন্দ্রবিন্দু। অথচ আজ চর দখলের মতো বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও আবাসিক হলগুলো দখল করে রাখা হয়েছে। বিরোধী আদর্শে বিশ্বাসী সংগঠনগুলো ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত। আবাসিক হলগুলো অছাত্র, বহিরাগত, অস্ত্রধারী মাস্তানদের অভয়ারণ্য।

তিনি বলেন, ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে অত্যন্ত ন্যাক্কারজনকভাবে। সরকার দলীয় পুলিশ একজন তরুণ নেতৃত্বকে বিতর্কিত করার জন্য গ্রেফতারের দুই ঘণ্টার পর মাদক ও ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে বলে মিডিয়াকে জানায়। আমরা মনে করি, এটা সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলক ও রাজনৈতিক পক্ষপাতদুষ্ট সিদ্ধান্ত।

তিনি আরও বলেন, কোনো স্বৈরাচারী, অগণতান্ত্রিক শাসক বেশিদিন জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি। এটাই ইতিহাসের চরম শিক্ষা। বর্তমান ভোটারবিহীন আওয়ামী লীগ সরকারও টিকতে পারবে না।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাজী আসাদুজ্জামান বলেন, আমরা আশা করি, বর্তমান ছাত্রদল নেতারা রাজীব আহসানসহ সব ছাত্রনেতার মুক্তির জন্য আন্দোলনে নামবেন। আন্দোলনের মাধ্যমেই ছাত্র নেতাদের মুক্ত করে আনা সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ফজলুল হক মিলন, ডাকসুর সাবেক এজিএস নাজিম উদ্দিন আলম, ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক এবিএম মোশারফ হোসেন, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বজলুর করিম চৌধুরী আবেদ ও ইডেন মহিলা কলেজের সাবেক ভিপি হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।