১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইয়েমেনে আরব জোটের ৫ দিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা

  • মানবিক ত্রাণ সরবরাহের সুবিধার্থে ব্যবস্থা

ইয়েমেনের নির্বাসিত প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর হাদির অনুরোধে ইয়েমেনে পাঁচদিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট বাহিনী। জরুরী মানবিক ত্রাণ সরবরাহের সুবিধার্থে ঘোষিত যুদ্ধবিরতি রবিবার থেকে কার্যকর হয়েছে বলে জোট বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়। খবর ওয়েবসাইটের।

২৬ মার্চ থেকে ইয়েমেনের শিয়া হুতি বেসামরিক বাহিনী ও দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট আলি আব্দুল্লাহ সালেহর অনুগত সেনাদের অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়ে আসছে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট বাহিনী। সৌদি আরবে আশ্রয় নেয়া সুন্নী ইয়েমেনি প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদিকে পুনরায় ক্ষমতাসীন করতে ইয়েমেনের অধিকাংশ এলাকা দখল করে নেয়া হুতিদের বিরুদ্ধে অভিযানে নেমেছে সুন্নী আরব জোট বাহিনী। শনিবার সকালে ইয়েমেনের মধ্যাঞ্চলীয় শহর তায়িজে আরব জোট বাহিনীর বোমাবর্ষণে ৮০ জন নিহত ও অন্তত ১৫০ জন আহত হয়। এই হামলার পর জোট বাহিনীর পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার খবর আসে। এর আগে চলতি মাসের প্রথমদিকে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় দেশটিতে সপ্তাহব্যাপী যুদ্ধবিরতি শুরু হলেও সৌদি আরবের বিরোধিতায় তা কার্যকর করা যায়নি। নির্বাসিত প্রেসিডেন্ট হাদি তাদের বিমান অভিযান বন্ধ করতে বলেননি- এই কথা জানিয়ে জাতিসংঘের যুদ্ধবিরতি আহ্বান সত্ত্বেও বিমান হামলা অব্যাহত রাখে সৌদি আরব। এবার হাদির আহ্বানে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় সৌদি বার্তা সংস্থা এসপিএ। সংস্থাটি জানিয়েছে, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে মানবিক ত্রাণ সরবরাহের সুযোগ দিতে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে সৌদি বাদশা সালমানকে একটি চিঠি দিয়েছিলেন হাদি। ওই আহ্বানে সাড়া দিয়েই পাঁচদিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হয়েছে। রবিবার দিনের শুরু থেকে শুরু হওয়া পাঁচদিনের যুদ্ধবিরতিতে আরব জোট বাহিনী সব ধরনের সামরিক তৎপরতা বন্ধ রাখবে বলে জানিয়েছে। তবে ইরান সমর্থিত হুতি ও সালেহ সমর্থিত বাহিনী এই যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করলে জোট বাহিনী তার জবাব দেয়ার অধিকার রাখে বলেও বিবৃতিতে বলা হয়েছে।