১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রজার্সের জন্য বাউন্স নিয়ে প্রস্তুত মার্ক উড!

  • এজবাস্টন টেস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্রিস রজার্স বাউন্স কেমন খেলেন, ইংলিশরা তা ভালই জানেন। অস্ট্রেলিয়ান হলেও ইংলিশ কাউন্টিতে হাত পাকিয়ে পুনরায় জাতীয় দলে ফিরেছেন। ওপেনিংয়ের মতো কঠিন পজিশনে জায়গা পাকা করেছেন আগেই। সেই রজার্সকে গতি ও বাউন্সের হুঙ্কার ছুড়ছেন ইংল্যান্ডের তরুণ পেসার মার্ক উড! কারণটা ভিন্ন। বাউন্সে আঘাত পেয়ে রজার্সের খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়। ঘটনা কয়েক মাস আগের। লর্ডসে এ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্ট চলাকালে জেমস এ্যান্ডারসনের বলে প্রায় একই পরিস্থিতিতে মাথা ঘুরে পিচের ওপর পড়ে গিয়েছিলেন সিরিজ শেষে ক্রিকেট ছাড়ার আগাম ঘোষণা দেয়া ৩৭ বছর বয়সী অসি ব্যাটসম্যান। এজবাস্টনের তৃতীয় ম্যাচে খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছিল সংশয়। তবে সফরকারী ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, খেলবেন তিনি। তখনই রজার্সকে বাউন্সারের ভয় দেখাচ্ছেন উড!

‘এ্যাগ্রেসিভ বোলিং টেস্ট ক্রিকেটেরই অংশ। সুতরাং রজার্স দুইবার আঘাত পেয়েছে বলে ওকে এতটুকু ছেড়ে দেয়া হবে না’Ñ বলেন উড। তিনি আরও যোগ করেন, ‘ইংল্যান্ডের হয়ে খেলাটা আমি উপভোগ করছি। প্রথম টেস্টে আমরা আমাদের ক্লাস দেখিয়েছিলাম, কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে সেটি ধরে রাখতে পারিনি। তবে দলের সবাই বিশ্বাস করে, অস্ট্রেলিয়া নয়, বিশ্বের যেকোন দলকে হারানোর সামর্থ্য ইংল্যান্ডের রয়েছে। মাঝে বিশ্রাম ও প্রস্তুতির এ সময়টা ভাল কেটেছে। এজবাস্টনে ঘুরে দাঁড়াতে প্রস্তুত আমরা।’ এবারের এ্যাশেজে নিশ্চিত ফেবারিট হিসেবে মাঠে নামে ওয়ানডের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু কার্ডিফের প্রথম টেস্টে সফরকারীদের হতাশ করে ১৬৯ রানের বিশাল জয় তুলে নেয় ইংল্যান্ড। ওই ম্যাচে ৪ উইকেট নেন তরুণ উড।

লর্ডসের দ্বিতীয় টেস্টে তার চেয়েও বড় জয়ে (৪০৫ রান) ঐতিহ্যের এই সিরিজে সমতা ফেরায় অস্ট্রেলিয়া। দারুণ ক্রিকেট খেলে ঘুরে দাঁড়ায় মাইকেল ক্লার্কের দল। এবার এগিয়ে যাওয়ার লড়াই। এজবাস্টনে তৃতীয় টেস্ট শুরু বুধবার থেকে। লর্ডস জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে এগিয়ে অসিরাও চায় এগিয়ে যেতে। বাজে ফর্মের জন্য শেন ওয়াটসন এবং ব্র্যাড হ্যাডিনের মতো দুই অভিজ্ঞকে বাইরে রেখেও দ্বিতীয় ম্যাচে অসাধরণ ক্রিকেট খেলে অস্ট্রেলিয়া। এরপর প্রস্তুতি ম্যাচে রজার্সের জায়গায় ওপেনিং করে রান পেয়েছেন শন মার্শ, আশা জাগানো দুটি ইনিংস খেলেছেন অধিনায়ক ক্লার্ক আর ওয়াটসনও। তবে টেস্ট জিততে বোলারদের পারফর্মেন্স গুরুত্বপূর্ণ। সেই জায়াগায় দারুণ ভারসাম্য তৈরি করেছেন অলরাউন্ডার মিচেল মার্শ। প্রস্তুতি ম্যাচে চমতকার বোলিং করেছেন তিনি।